টিডিএন বাংলা ডেস্ক : টাইগ্ৰিস নদীতে নৌকা ডুবে মৃত্যু হয়েছে অন্তত ১০০ জনেরও বেশি। সাধারণত একটি নৌকায় ৫০ জন যাত্রী নিয়ে সফর করা যায়। কিন্তু সেই নৌকাটি ২০০ জন যাত্রী নিয়ে সফর করছিল। নৌকাটি ইরাকের মসুল শহরে ২০০ জনকে নিয়ে সফর করার সময় ডুবে যায়। যার ফলে অন্তত একশো জনেরও বেশি মৃত্যু হয়েছে। ইরাকের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রক জানিয়েছে, এতজনের মৃত্যুর পাশাপাশি ৫৫ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। মৃতদের মধ্যে ১৯ জন শিশু রয়েছে বলে খবর।

এএনআই আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমে এক এক জায়গায় মৃত্যুর খবর এক এক রকমের আসছে। মসুলের সরকারি আধিকারিক হুসম খলিল জানিয়েছেন, যারা সাঁতার কাটতে পারেন না, এমন মানুষই ডুবে মারা গিয়েছেন। নৌকা গুলিতে সাধারণভাবে ৫০ জনকে চাপানো হয়। তবে এই নৌকায় দুশো জনের বেশি মানুষকে চাপানো হয়েছিল। প্রযুক্তিগত ত্রুটির জন্যই নৌকাডুবি হয়েছে বলে ইরানের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রক জানিয়েছে।

এমন জায়গায় নৌকা ডুবেছে, সেইসময় আশেপাশে উদ্ধার চালানোর মতো নৌকাও ছিল না। নৌরুজ থেকে যাত্রীদের ফেরি করে আনা হচ্ছিল। এই ঘটনায় পাঁচজন ফেরি কর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এখনও নিখোঁজদের উদ্ধারকার্য চলছে। টাইগ্রিস নদীতে সাধারণভাবে অনেক জল না থাকলেও বছরের এই সময়ে নদীতে জল ও স্রোত অনেক বেশি থাকে। কারণ তুরস্কের পাহাড়ের বরফ গলে টাইগ্রিস নদী ভরিয়ে দেয়।