টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বাংলাদেশ সরকার নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) সাথে নিয়ে দেশের গণতন্ত্রকে গলাটিপে হত্যা করতে যাচ্ছে বলে বুধবার মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

‘প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলছে, একাদশ সংসদ নির্বাচনে সব দলের জন্য লেভেল প্লেয়িং বিদ্যমান রয়েছে। আমরা বলতেছি, দেশে নির্বাচনী পরিবেশের কোনো লেভেল প্লেয়িং নেই; আওয়ামী লীগ সরকার বর্তমান নির্বাচন কমিশনকে সাথে নিয়ে দেশের গণতন্ত্রকে গলাটিপে হত্যা করতে যাচ্ছে’, বলেন তিনি।

দুপুরে কুমিল্লার চান্দিনা উপজেলার রেদোয়ান আহমেদ কলেজ মাঠে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনী এক পথসভায় ফখরুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র বলেন, আমরা দেখতেছি ২০১৪ সালের মতো আওয়ামী লীগ নিজেরা সরকারে থেকে নির্বাচন দিয়ে আবারও ক্ষমতায় আসতে চাইছে। যা সম্পূর্ণ গণতন্ত্র বিরোধী।

তিনি বলেন, বর্তমানে দেশে মানুষ স্বৈরাচারী রাষ্ট্রে বাস করছে। জনগণের ভোটে আগামী ৩০ ডিসেম্বর দেশ স্বৈরাচারী সরকার থেকে মুক্তি লাভ করবে এবং গণতন্ত্র ফিরে পাবে।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, গণতন্ত্রের গান গেয়ে যিনি (খালেদা জিয়া) টেকনাফ থেকে তেতুলিয়া ছুটে বেড়িয়েছেন। তাকে আজ এই স্বৈরাচারী সরকার অন্যায়ভাবে মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে পাঠিয়েছেন। তাকে নির্বাচনও করতে দিচ্ছেন না। কারণ তারা জনগণের ভোটে নির্বাচিত হতে পারবেন না বলেই আজ এমনটি করছেন।

তিনি বলেন, পুলিশ, র‌্যাবসহ সর্বস্তরের প্রশাসনকে ব্যবহার করে বিএনপিসহ ঐক্যফ্রন্টের নেতাকর্মী ও সমর্থকদের বিরুদ্ধে হামলা, মামলা এবং হয়রানি করছে সরকার। নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণায় আমাদের প্রার্থীদের মাঠে নামতে দিচ্ছেন না।