টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ফের রোহিঙ্গাদের মায়ানমারে ফেরৎ পাঠানোর কাজ শুরু করবে বাংলাদেশ। আগামী সপ্তাহ থেকেই শুরু হবে এই প্রক্রিয়া। বৃহস্পতিবার মায়ানমার এবং বাংলাদেশের সরকারি তরফ থেকে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়েছে। এর আগে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হলেও রোহিঙ্গাদের অসম্মতিতে তা ব্যাহত হয়।

সূত্রের খবর, মায়ানমারের কাছে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে ২২,০০০-এরও বেশি মানুষের নামের তালিকা পাঠানো হয়েছিলো। যার মধ্যে ৩,৫৪০ জনকে আগামী ২২ আগস্ট তারা ফিরিয়ে নিতে রাজী হয়েছে।

যদিও আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের মহম্মদ ইলিয়াস জানান, রোহিঙ্গাদের সাথে তাদের ফেরৎ পাঠানোর বিষয়ে কোনোরকম আলোচনা করা হয়নি। তাদের মূল দাবীগুলোর বিষয়েও মায়ানমারের পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি। পাশাপাশি বর্তমানে ১ লক্ষ রোহিঙ্গা রাখাইন প্রদেশের বিভিন্ন ক্যাম্প ও গ্রামে থাকলেও তাঁদের কোনো নাগরিক পরিচয়পত্র দেওয়া তো হয়নি বরং তাদের গতিবিধি কড়া নিয়ন্ত্রণে রাখা হয়েছে। রাষ্ট্রসংঘ বা কোনো মানবাধিকার সংগঠনকে ওই অঞ্চলে ঢুকতেও দেওয়া হচ্ছে না।