টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ভোটের আগেই বিরোধী বিএনপি, জামায়াত নেতাকর্মীদের গনহারে গ্রেপ্তার ও ব্যাপক দপনপীড়নের অভিযোগ উঠলো শেখ হাসিনার প্রশাসন ও তার দল আওয়ামীলীগ এর বিরুদ্ধে। বিরোধীদের মিছিল আটকানো, পোস্টার মারতে না দেওয়া, অফিস ভাঙচুর, পথসভা বন্ধ করা সহ নানান ভাবে অত্যাচার চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ। এত কিছুর পরেও সেদেশের নির্বাচন কমিশন কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় ক্ষুব্ধ বাংলাদেশের বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীরা। ভোট প্রচারের এই মুহূর্তে এভাবে প্রশাসনের দমন পীড়নের ফলে বিরোধীদের ভোট প্রচার প্রায় বন্ধ হয়ে রয়েছে।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে আগামী ৩০ শে ডিসেম্বর সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে চলেছে। ইতিমধ্যেই নমিনেশন প্রক্রিয়া ও সমস্ত প্রার্থীদের প্রতীক বরাদ্দ সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। সমস্ত প্রক্রিয়া আনুষ্ঠানিকভাবে সম্পন্ন করে এই মুহূর্তে ভোটের প্রচারে নেমে পড়েছে সবপক্ষ। কিন্তু অভিযোগ, বিরোধী নেতা কর্মীদের ভোট প্রচার তো দূরের কথা কোথাও পোস্টার, হ্যান্ডবিল কিংবা পথসভাও করতে দেওয়া হচ্ছে না। জামায়াতের সমর্থিত ধানের শীষ এর প্রার্থী পিরোজপুর-১ আসনের প্রার্থী শামীম সাঈদীর ছোট ভাই মাসুদ সাঈদী আজ ফেসবুকে অভিযোগ করে বলেন, ” পিরোজপুর ১এ শামীম সাঈদীর ধানের শীষের প্রচার মাইক বন্ধ করে দিয়েছে সরকারী দল।” তিনি বিভিন্ন জায়গায় আরো তথ্য তুলে ধরে কিভাবে সরকারি দল দমন পীড়ন চালাচ্ছে তার চিত্র তুলে ধরেছেন।

গোটা দেশের বিএনপি জামায়াত সহ বিরোধী নেতা কর্মীদের যেভাবে গনহারে গ্রেপ্তার, হামলা করা হচ্ছে তাতে আগামী ৩০ তারিখ আদৌ সুষ্ঠ নির্বাচন হবে কি না দ্বিধাদ্বন্দ্বে গোটা বাংলাদেশ।