টিডিএন বাংলা ডেস্ক: মানসিক প্রতিবন্ধীকে দল বেঁধে ‘ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করা হয়েছে। এমন ঘৃণ্য ঘটনা ঘটেছে টাঙ্গাইলের কালিহাতী উপজেলায়। নওগাঁর মান্দা উপজেলায় মাকে হত্যার পর অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে মেয়েকে ধর্ষণ করা হয়েছে। এছাড়া কুমিল্লার দেবিদ্বারে ১১ বছরের এক শিশু, পটুয়াখালীতে এক কিশোরী, মুলাদীতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী ও আড়াইহাজারে প্রতিবেশীর ধর্ষণে মাদরাসা ছাত্রী অন্ত:সত্ত্বার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এদিকে, লালমনিরহাটে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে এক শিক্ষকসহ বিভিন্নস্থানে ধর্ষণ মামলায় ৪ জনকে আটক করেছে পুলিশ।

নওগাঁ : মাকে গলা কেটে হত্যার পর অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সামিউল ইসলাম ওরফে সাগর (২২) নামের এক যুবককে আটক করেছে পুলিশ। গত সোমবার রাতেই গৃহবধুর লাশ ও ধর্ষণের শিকার তরুণীকে উদ্ধার করে মান্দা থানাপুলিশ। ওই তরুণী বর্তমানে নওগাঁ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন। নিহতের নাম নাসিমা আক্তার সাথী (৪০)। আটক সামিউল ইসলাম গৃহবধূকে হত্যার পর তার মেয়েকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন বলে পুলিশের দাবি। আটক সামিউলের বাড়ি উপজেলার চকশ্যামরা গ্রামে।

আটক যুবক সামিউল ও ধর্ষণের শিকার তরুণীর বরাত দিয়ে মান্দা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন বলেন, নিহত গৃহবধুর ছোট মেয়ে স্থানীয় কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী। তার সঙ্গে সামিউলের প্রেমের সর্ম্পক ছিল। সম্প্রতি সেই সর্ম্পকে টানাপোড়ন শুরু হয়। গত সোমবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ওই তরুণীকে হত্যার উদ্দেশ্যে সামিউল একটি চাকু নিয়ে তাদের বাড়িতে যান। বাড়ির পেছনের দিক দিয়ে ছাদে উঠেন। ছাদের দরজা দিয়ে ওই তরুণীর বাড়িতে ঢোকেন। তরুণীর ঘরের দরজায় কড়া নাড়লে তিনি দরজা খোলেন। এ সময় দুজনের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। এ সময় তরুণীর মা জেগে উঠেন। সামিউল চাকু দিয়ে তরুণীর মায়ের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করেন। এতে তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাকে গলা কেটে হত্যা করা হয়। পরে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে তরুণীকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যান সামিউল। ওসি জানান, সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্ত শেষে গৃহবধূর লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। ওই হাসপাতালেই ধর্ষণের শিকার তরুণীর স্বাস্থ্য পরীক্ষা সম্পন্ন হয়েছে।

পটুয়াখালী : পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় বিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে এক কিশোরীকে ধর্ষণ করা হয়েছে । ওই কিশোরী বর্তমানে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা । এ ঘটনায় গতকাল মঙ্গলবার সকালে বাউফল থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ ধর্ষক ইমরান হাওলাদারকে (২১) আটক করেছে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে , উপজেলার ধুলিয়া ইউনিয়নের ধুলিয়া গ্রামের ওই কিশোরীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে ধর্ষক ইমরানের। এক পর্যায়ে বিয়ে প্রলোভন দেখিয়ে তাকে ধর্ষণ করলে কিশোরী অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে । বিষয়টি জানাজানি হলে ধর্ষক তাকে বিয়ে করতে টালবাহানা করেন। এরপর কোন উপায় না পেয়ে মঙ্গলবার সকালে কিশোরীর বাবা বাউফল থানায় অভিযোগ করেন।

মুলাদী (বরিশাল) : বরিশালের মুলাদীতে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে থানায় দুই লম্পটের নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। স্থানীয়ভাবে সালিশ মীমাংসায় ব্যর্থ হয়ে গত রোববার রাতে ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেন। মামলার আসামি উপজেলার সফিপুর ইউনিয়নের পূর্বচরপদ্মা গ্রামের হেলাল চাকলাদারের পুত্র জাকির চাকলাদার ও সেকান্দার খানের পুত্র মামুন খান।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, কালাম চাকলাদারের মেয়ে ও পূর্বচরপদ্মা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রী পাশ্ববর্তী পাটক্ষেতে শাক আনতে গেলে সেখানে আগে থেকে অবস্থান করা জাকির চাকলাদার জোড়পূর্বক তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় এবং শ্লীলতাহানী করে। এ সময় সেকান্দার খানের পুত্র মামুন খান তাকে দেখে ফেলে এবং বিষয়টি লোকজনকে বলে দেওয়ার কথা বলে সে ওই ছাত্রীকে জড়িয়ে ধরে শ্লীলতাহানী করে এবং ধর্ষণের চেষ্টা করে। এ সময় স্কুল ছাত্রী ধর্ষণে বাধা দিলে জাকির ও মামুন তাকে মারধর করে। এতে সে চিৎকার শুরু করে। ছাত্রীর ডাকচিৎকারে তার মা ও স্থানীয়রা ছুটে আসলে বখাটেরা পালিয়ে যায়। ইনকিলাব