টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ভেনেজুয়েলা দখল করতে যুক্তরাষ্ট্রকে ব্রাজিলের আকাশসীমা ব্যবহার করতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ। ব্রাজিলের ভাইস প্রেসিডেন্ট হ্যামিলটন মৌরাও বলেছেন, ভেনেজুয়েলায় সামরিক হস্তক্ষেপ চালাতে যুক্তরাষ্ট্রকে ব্রাজিলের ভূখ- ব্যবহারের অনুমতি দেওয়া হবে না। গত সোমবার কলম্বিয়ায় লিমা গ্রুপের বৈঠকে দেওয়া বক্তব্যে তিনি এমন মন্তব্য করেন। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম।

‘ভেনেজুয়েলা সংকট উত্তরণের উপায়’ নিয়ে আলোচনা করতে কানাডা ও লাতিন আমেরিকার ১৩টি দেশ নিয়ে গঠিত আঞ্চলিক জোট লিমা গ্রুপের এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হচ্ছে। বৈঠকে ব্রজিলের ভাইস প্রেসিডেন্ট বলেন, ব্রাজিল ভেনেজুয়েলায় যুক্তরাষ্ট্রের যে কোনও সামরিক হস্তক্ষেপের বিরোধী।

এদিকে ব্রাজিলের টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক সাক্ষাৎকারে ভেনেজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো বলেছেন, ভেনেজুয়েলা সংকট যেন এ অঞ্চলে একটি সশস্ত্র সংঘাতে রূপ না নেয় তা নিশ্চিত করতে তার দেশ কাজ করে যাচ্ছে। এমন সময়ে মাদুরো এ মন্তব্য করলেন যার একদিন আগে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেছিলেন, মাদুরো’র বিদায়ের দিন গণনা শুরু হয়েছে।

এদিকে ভেনেজুয়েলায় নির্বাচিত সরকারের বিরুদ্ধে ‘অভ্যুত্থান ঘটানো’র প্রচেষ্টায় আরও মরিয়া হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্র। নতুন নিষেধাজ্ঞা জারির পাশাপাশি প্রকাশ্যে তারা ঘোষণা করেছে, সাম্প্রতিক সহিংসতা প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে উৎখাতের সম্ভাব্য বহুমুখী বিকল্প খুলে দিয়েছে। ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে ভেনেজুয়েলার তেল শিল্পে নিষেধাজ্ঞা জারি করে যুক্তরাষ্ট্র। ফলে আটকে যায় দেশটির বৈদেশিক মুদ্রা থেকে আয়। মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, তিনি নিশ্চিত যে মাদুরোর দিন শেষ হয়ে এসেছে। তিনি অভিযোগ করেন, সহিংসতার জন্য ‘কোলেকটিভো’ নামে সরকার সমর্থকদের একটি সশস্ত্র গ্রুপই দায়ী। সিএনএন-এর স্টেট অব ইউনিয়ন অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে তিনি বলেন, আমরা একটি নির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে এগোচ্ছি। ভেনেজুয়েলার জনগণকে তাদের প্রাপ্য গণতন্ত্র নিশ্চিত করতে চাই আমরা।

যুক্তরাষ্ট্রের স্পষ্ট অভ্যুত্থান চেষ্টার মধ্যেই সোমবার লিমা গ্রুপের বৈঠকে এ ইস্যুতে নিজের অবস্থান পরিষ্কার করলো ব্রাজিল।