টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের তারিখ পিছিয়ে দিলো বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন। মূলত সরস্বতীপূজার কারণেই ভোটের দিনক্ষণ পিছানো হলো বলে সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর। শনিবার এক বিবৃতিতে বাংলাদেশের প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা জানান, সিটি করপোরেশন নির্বাচন ৩০ জানুয়ারির পরিবর্তে ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।
     

উল্লেখ করা যেতে পারে, ঢাকার দুটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনের জন্য ৩০ শে জানুয়ারি দিনক্ষণ ঘোষণা করেছিল বাংলাদেশের নির্বাচন কমিশন। কিন্তু দুর্গাপূজার পরের দিনই ভোটকে ঘিরে রাজনৈতিক তরজা সৃষ্টি হয়। হিন্দু সমাজের পাশাপাশি বিভিন্ন গনসংগঠন এমনকি রাজনৈতিক দলের নেতারাও ভোট পিছানো দাবি জানান। অন্যদিকে নির্বাচনের জন্য এসএসসি ও সমমানের  পরীক্ষাও পিছিয়ে দেওয়া হয়। এই পরিস্থিতিতে শনিবার তড়িঘড়ি বৈঠকে বসেন নির্বাচন কমিশন। আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে বৈঠক শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা জানান, ক্যালেন্ডারে যেহেতু ৩০ তারিখ দুর্গাপূজা ছিল না তাই ৩০ তারিখ নির্বাচনের দিনক্ষণ নির্ধারণ করা হয়েছিল। কিন্তু কারও ধর্মীয় অনুভূতিতে যাতে ব্যাঘাত না ঘটে সেটা আমরা বিবেচনা করে এবং  শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলে নির্বাচনের দিনক্ষণ পরিবর্তন করার ব্যাপারে সম্মত হয়েছি। এদিকে পুজোর দিনের নির্বাচনের দিনক্ষণ পরিবর্তন করে অন্যদিন করায় খুশি হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষরা।