টিডিএন বাংলা ডেস্ক : বাংলাদেশে বর্তমান শেখ হাসিনা সরকারকে দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আনার জন্য ২০১৪ সালে হিন্দু সম্প্রদায় নজিরবিহীন ভূমিকা রেখেছে। এর পরও হিন্দু নির্যাতন বন্ধ হয়নি এবং অতীতের সকল রেকর্ড ভঙ্গ হয়েছে। আওয়ামি লীগ সরকারের আমলে হিন্দু নির্যাতন বেশি হয়। বর্তমান হাসিনা সরকারের সময় ৮৮ জন হিন্দুকে হত্যা করা হয়েছে, বলে অভিযোগ করেছে বাংলাদেশ জাতীয় হিন্দু মহাজোট।
শনিবার  ঢাকার জাতীয় প্রেসক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এ অভিযোগ করে হিন্দু মহাজোটের মহাসচিব গোবিন্দচন্দ্র প্রামাণিক। তিনি বলেন একাত্তরের পরে দেশে যতোগুলো সরকার এসেছে তারা কেউ হিন্দুদের কোনো দাবি মেনে নেয়নি। সবার আমলে নির্যাতন হয়েছে। এমনকি তারা সবাই হিন্দুদেরকে ক্ষমতার সিঁড়ি হিসেবে ব্যবহার করেছে।
তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, অতীতের যত সরকার এসেছে তাদের সবার আমলে হিন্দুরা নির্যাতিত হয়েছে। তার মধ্যে আওয়ামি লীগ সরকারের সময় বেশি হয়েছে।  বর্তমান হাসিনা সরকারের সময়ে ৮৮ জন হিন্দুকে হত্যা করা হয়েছে, হত্যার হুমকি ২৮০ জন, হত্যার চেষ্টা ৮০ জন, আহত করা হয়েছে ৩৪৭ জন, নিখোঁজ হয়েছে ৪৮ জন, আটক রেখে নির্যাতন হয়েছে ১১১ জন চাঁদাবাজি হয়েছে, ৪০ লক্ষ টাকা লুট ও সম্পত্তির উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে ৪০ টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে।