টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ফিলিস্তিনের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাস হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেছে, তেল আবিব আবার অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকায় আগ্রাসন চালালে ইহুদিবাদী ইসরাইলকে উচিত শিক্ষা দেয়া হবে।
গাজায় হামাসের নয়া প্রধান ইয়াহিয়া সিনওয়ারের বরাত দিয়ে ইসরাইলি গণমাধ্যম এ খবর দিয়েছে। সিনওয়ার বলেছেন, তার সংগঠন ইসরাইলের সঙ্গে যুদ্ধে জড়াতে চায় না কিন্তু তেল আবিবের সম্ভাব্য আগ্রাসন মোকাবিলায় হামাসের সার্বক্ষণিক প্রস্তুতি রয়েছে।
তিনি আরো বলেন, “আমরা ইসরাইলের সঙ্গে সংঘাত চাই না। কিন্তু যদি সংঘাত বেধে যায় তাহলে আমরা তাদের দর্প চূর্ণ করব।”
ইসমাইল হানিয়া (বামে) ও ইয়াহিয়া সিনওয়ার
গত ফেব্রুয়ারি মাসে গাজায় হামাসের রাজনৈতিক শাখার প্রধান হিসেবে ইসমাইল হানিয়ার স্থলাভিষিক্ত হন ইয়াহিয়া সিনওয়ার। তিনি বুধবার আরো বলেছেন, ইসরাইল গাজা উপত্যকার বিরুদ্ধে কোনো ‘বোকামিপূর্ণ পদক্ষেপ’ নিলে তাকে ২০১৪ সালের চেয়ে অনেক বেশি কঠোর জবাব দেয়া হবে।
২০১৪ সালের জুন মাসে ইহুদিবাদী ইসরাইল গাজা উপত্যকার ওপর সর্বশেষ আগ্রাসন চালিয়েছিল। ওই আগ্রাসনে অন্তত ২,২০০ ফিলিস্তিনি শহীদ এবং আরো ১১,০০০ মানুষ আহত হন। হামাসসহ ফিলিস্তিনের প্রতিরোধ আন্দোলনগুলো সে সময় ইসরাইলি বাহিনীর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায় এবং টানা ৫১ দিন প্রতিরোধ চালিয়ে যায়।
সেই প্রতিরোধের প্রতি ইঙ্গিত করে হামাস নেতা সিনওয়ার আরো বলেন, ইহুদিবাদী ইসরাইল নিজেই গাজার বিরুদ্ধে যুদ্ধ চায় না; কারণ, তেল আবিব জানে, গাজায় তাকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেয়া হবে না। (পার্সটুডে)