টিডিএন বাংলা ডেস্ক : পশ্চিমা কুসংস্কার পরিবর্তন করতে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে নিউইয়র্কে একটি বৈচিত্র্যপূর্ণ ফ্যাশন সপ্তাহে হিজাবের প্রদর্শন করা হয়েছে। হিজাব যে নারীর নিরাপত্তার পাশাপাশি তার সৌন্দর্যের বিকাশ, এরই লক্ষ্যে হিজাব প্রদর্শনী পালন করা হয়।
এ ফ্যাশন সপ্তাহ শুরু হয়েছে, গত বৃহস্পতিবার থেকে নিউইয়র্কের চেলসি শহরে এবং এই ফ্যাশন শোতে পোশাক উপস্থাপন করা ইন্দোনেশিয়ার ৫ ডিজাইনারের মধ্যে অন্যতম হলেন পেলাঙ্গি।
ইন্সটাগ্রামে প্রায় ৪৮ লাখ ফলোয়ার থাকা ডিজাইনার দিয়ান পেলাঙ্গি বলেন, ‘আমরা হিজাবী মুসলিম নারীরা নিপীড়িত নই। আমরা বিশ্বকে এটা দেখাতে চাই যে, আমাদের হিজাব বিশ্বের অন্যতম স্টাইলিশ ও সুন্দর পোশাক।’
এ ফ্যাশন শোতে আরেক নারী হিজাব ডিজাইনার এবং মুসলিম নারীদের ঐতিহ্যের পোশাক হিজাবের প্রদর্শনী করেছেন ভিভি জুবেদি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে এ ফ্যাশন শোতে অভিষেক হয়েছে তার।
মুসলিমপ্রধান দেশগুলোর প্রতি ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞা আরোপের কারণে এ ফ্যাশন শোতে অংশ নেয়ার ব্যাপারে আগ্রহ প্রকাশ করেন জুবেদি।
জুবেদি বলেন, ‘মিস্টার প্রেসিডেন্ট, আমি আপনার দেশকে এবং এ দেশের জনগণকেও খুব ভালোবাসি। কিন্তু আমরা আপনার ও আপনার দেশের জনগণের জন্য তেমন কিছু করতে পারব না। আমরা সবাই সমান, এটাই আমাদের মানবিকতা।’
ফ্যাশন শোতে জুবেদির উপস্থাপন ছিল খুবই রক্ষণশীল। ওই নারী ডিজাইনার তার ব্যান্ড পোশাক কালো আবায়ার প্রদর্শনী করেন। ঢিলেঢালা আপাদমস্তক ঢাকা সৌদি আরবসহ বিশ্বের মুসলিম দেশের নারীদের জন্য অনুমোদিত এ পোশাকের প্রদর্শনী করেন তিনি।
তিনি আরও বলেন, ‘আমি যুক্তরাষ্ট্রকে ভালোবাসি এবং এখানে আমার বহু ক্রেতা রয়েছে। হিজাব সুন্দর, আমরা কোন ধর্মের মানুষ এটা মুখ্য বিষয় নয়। আমরা সবাই সমান।’
এক বছর আগে ইন্দোনেশিয়ার ডিজাইনার অ্যানিসা হাসিবান প্রথম নিউইয়র্কের ফ্যাশন শোতে হিজাবের প্রদর্শনী শুরু করেন।
(তথ্যসূত্র : মনিটর নিউজ)