টিডিএন বাংলা ডেস্ক: হোস্টেলে ঢুকে নিজস্ব ঘরের ভিতরেই এক ছাত্রকে পিটিয়ে খুনের অভিযোগে উত্তাল হয়ে উঠলো বাংলাদেশ। মৃত ছাত্রের নাম আবরার ফাহাদ। সে বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের তড়িৎ ও ইলেকট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। ঘটনায় আওয়ামী লীগের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের জড়িত থাকার অভিযোগ উঠেছে। এদিকে ফাাহাদের মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে তার বাড়ি কুষ্টিয়া শহরে।

সংবাদ মাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ওই ছাত্রকে রবিবার শের-ই বাংলা হলের ২০১১ নম্বর কক্ষের ভেতরে পিটিয়ে হত্যা করা হয়। ঘটনার পর থেকেই রাজনৈতিক চাপান উতর সৃষ্টি হয়। ওই হোস্টেলটিতে ছাত্র লীগের নেতারা থাকায় এই হত্যা কান্ডের পরেই স্বভাবতই ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের দিকে আঙ্গুল উঠেছে। পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছে। এদিকে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তথা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেল ও সহ-সভাপতি ফুয়াদ হোসেন, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এবং মেকানিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী অনিক সরকার, ক্রীড়া সম্পাদক তথা নেভাল আর্কিটেকচার অ্যান্ড মেরিন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ছাত্র মেফতাহুল ইসলাম জিয়নকে আটক করেছে পুলিশ।