টিডিএন বাংলা ডেস্কঃ সোমবার দুপুর ১২টার দিকে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকার বায়তুল মোকাররম উত্তর গেটে সমাবেশ শেষে সংগঠনের আমীর ও চরমোনাই’র পীর মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করিমের নেতৃত্বে একটি বিশাল মিছিল মার্কিন দূতাবাস অভিমুখে রওয়ানা দেয়। বিক্ষোভ মিছিলটি পল্টন মোড়, বিজয়নগর, কাকরাইল হয়ে শান্তিনগরে এলে পুলিশ তাতে বাধা দেয়। পরে সেখানে রাখা ব্যারিকেডের উপরে দাঁড়িয়ে কর্মসূচির সমাপ্তি ঘোষণা করেন মুফতি সৈয়দ মো. রেজাউল করিম। খবর পার্সটুডের।

তিনি বলেন, ‘আমরা মার্কিন দূতাবাস ঘেরাওয়ের কর্মসূচি দিয়েছিলাম। কিন্তু, বায়তুল মোকাররম থেকে শান্তিনগর পর্যন্ত এলে পুলিশ আমাদের কর্মসূচিতে বাধা দেয়। সরকারের এ রকম বাধা কতদিন চলবে? জোয়ার আসলে কোনোভাবেই তা ঠেকানো যাবে না।’

রেজাউল করিম প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘মুসলিমদের ওপর এই অত্যাচার কতদিন চলবে? জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী করার যে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, তার প্রতিবাদে আগামী শুক্রবার দেশব্যাপী জেলায় জেলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে।’

গত ৬ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইহুদিবাদি ইসরাইলের রাজধানীর স্বীকৃতি দেন এবং তেল আবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস সেখানে সরিয়ে নেয়ার কথা জানান। এ ঘোষণার পর মুসলিম বিশ্বে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে ট্রাম্পের এ সিদ্ধান্তের নিন্দা জানানো হয়েছে।

এছাড়া, বিএনপি, জাতীয় পার্টি, জামায়াতে ইসলামীসহ বিভিন্ন সংগঠন থেকে ট্রাম্পের এ সিদ্ধান্তে কড়া প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। গত ৮ ডিসেম্বর শুক্রবার ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর রাজধানীতে বিশাল সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি পালন করেছে। প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে ১১ ডিসেম্বর মার্কিন দূতাবাস অভিমুখে গণমিছিলের কর্মসূচি ঘোষণা করে দলটি।