টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ৫৫ বছর পর কাশ্মীর নিয়ে রুদ্ধদ্বার বৈঠক হল রাষ্ট্রসংঘে। সেখানে সম্প্রতি ভারতের জম্মু-কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে খারিজ নিয়ে আলোচনা হয়। শুক্রবার রাষ্ট্রসংঘের বৈঠকে কাশ্মীর ইস‍্যু নিয়ে পাকিস্তান কে কড়া বার্তা দেওয়া হয়। বৈঠকে পাকিস্তান কে জানিয়ে দেওয়া হয় কাশ্মীর ইস‍্যু ভারতের অভ‍্যন্তরীন বিষয়।

সূত্রের খবর, পাকিস্তানকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে রাষ্ট্রসংঘে ভারতের প্রতিনিধি সৈয়দ আকবরুদ্দিন বললেন, কাশ্মীর আমাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়, পাকিস্তান অযথা এর মধ্যে নাক গলাচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, কাশ্মীর নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে তা দেশের স্বার্থে, কাশ্মীরের মানুষের স্বার্থেই নেওয়া। এর ফলে সরকার চালানো যেমন সহজ হবে, তেমনই আর্থিক উন্নতিও হবে। যদিও শুধু পাকিস্তানই নয়, রাষ্ট্রসংঘে কড়া ভাষায় ভারতের সমালোচনা করেছে চিনও।

চিন জানিয়েছে, ভারতে যা হচ্ছে তা ভয়ঙ্কর। চিন ও পাকিস্তান উভয় দেশই দাবি করে, কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার করা অনৈতিক হয়েছে। এই বিষয়টি নিয়ে রাষ্ট্রসংঘে আলোচনা হোক। কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা প্রত্যাহার অনৈতিকভাবে হয়েছে কি না।

সেই দাবি মেনে ১৯৬৫ সালের পর এই প্রথম রুদ্ধদ্বার বৈঠক হল রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে। ভারতীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় এই বৈঠক শুরু হয়। রুদ্ধদ্বার বৈঠকে উভয়পক্ষের মধ্যে কাশ্মীর বিতর্কে উত্তাপ ছড়িয়ে পড়ে। ভারতের তরফে স্পষ্ট বার্তা দেন আকবরুদ্দিন।

উল্লেখ্য, এদিন বৈঠক শুরুর আগে আমেরিকার প্রেসিডেন্টকে ফোন করেন পাকিস্তান প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। তারপর রাষ্ট্রসংঘে চিনের সঙ্গে যৌথভাবে কাশ্মীর নিয়ে আবেদনের পর, আমেরিকার প্রেসিডেন্টকে ফোন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ।