টিডিএন বাংলা ডেস্ক: করোনাভাইরাসে নাজেহাল চিন। ইতিমধ্যেই মৃত্যুপুরীতে পরিণত হয়েছে চিন। দিন বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে মৃত ও আক্রান্তের সংখ্যাও হু হু করে বেড়েই চলেছে। তবে এবার মারা গেলেন খোদ উহান হাসপাতালের ডিরেক্টর। অপ্রত্যাশিতভাবে স্থানীয় সময় মঙ্গলবার ভোররাতে কনভিড–১৯–এ মারা গেলেন ইউহানের ইউচ্যাং হাসপাতালের ডিরেক্টর লিউ ঝিমিং। তখনই চীনা ব্লগে এবং স্থানীয় সংবাদমাধ্যমে লিউ–র মৃত্যুর খবর সম্প্রচারিত হয়েছিল। কিন্তু কিছু মুহূর্তের মধ্যেই সেগুলি তুলে নিয়ে লেখা হয় চিকিৎসকরা তাঁকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করছেন। অবশেষে সকালে সরকারি সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানানো হয়, বহু চেষ্টা করেও বাঁচানো যায়নি লিউ–কে।

জানাগেছে, হাসপাতালের ডিরেক্টরের মৃত্যুর খবর চেপে রাখার বহু চেষ্টা করে চিন প্রশাসন। কিন্তু শেষমেশ ব্যর্থ হয়। প্রকাশ্যে চলে আসে আসল সত্য। হাসপাতালের ডিরেক্টরের মৃত্যুতে ফের এই সংঙ্কট মোকাবিলায় প্রশাসনের ব্যর্থতা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া এবং সংবাদমাধ্যমে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন স্থানীয় মানুষজন। কারণ গত ডিসেম্বরের শেষের দিকে, ওয়েনলিয়াং–ই প্রথম কনভিড–১৯ সম্পর্কে প্রশাসনকে সতর্ক করেছিলেন এবং সেজন্য তাঁকে শাস্তিও দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, করোনাভাইরাসের মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়ে এর আগেও ১০ হাজার করোনাভাইরাসে আক্রান্তের লাশ পুড়িয়ে দেওয়ার মতো অভিযোগ উঠেছে চিনা প্রশাসনের বিরুদ্ধে। এদিকে মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত চিনজুড়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮৬৮ জন এ। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৯৮ জনের। সেইসঙ্গে আক্রান্সের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৭২৪৩৬ জন।