টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বিশ্বে প্রতি ৪০ সেকেন্ডে নারী-পুরুষের মধ্যে যে কোনো একজন আত্মহত্যা করে, এমনটাই চাঞ্চল্যকর তথ্য জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ডব্লুএইচও। তবে পুরুষের চেয়ে নারীরা বেশি আত্মহত্যা করে বলে জানিয়েছে সংস্থাটি। সংস্থা আরও জানিয়েছে, আত্মহত্যার প্রচলিত উপায়গুলির মধ্যে রয়েছে গলায় দড়ি, বিষ খাওয়া কিংবা গুলি করা। ডব্লুএইচও তাদের তরফ থেকে সরকারগুলির কাছে অনুরোধ জানিয়েছে, আত্মহত্যা ঠেকাতে পরিকল্পনা করতে। মানুষকে চাপ মুক্ত রাখতেও আহ্বান জানানো হয়েছে।

জনস্বাস্থ্যে সারা পৃথিবী ব্যাপী অন্যতম সমস্যা হল আত্মহত্যা। বয়স, পুরুষ, নারী, ধর্ম নির্বিশেষে সারা পৃথিবী এর দ্বারা প্রভাবিত বলে জানানো হয়েছে ডব্লুএইচও-র রিপোর্টে।

রিপোর্টে আরও দেখা গিয়েছে, ১৫ থেকে ২৯ বছর বয়সীদের মধ্যে মৃত্যুর দ্বিতীয় কারণ হল আত্মহত্যা। এই বয়সী কিশোরী যুবতীদের মধ্যে প্রথম কারণ হল প্রসূতি মৃত্যুর ঘটনা। অন্যদিকে কিশোরদের মধ্যে পথ দুর্ঘটনা এবং ইন্টারপার্সোনাল ভায়োলেন্সের পরেই চলে আসছে আত্মহত্যায় মৃত্যুর ঘটনা।

বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, প্রতি বছর আটলক্ষ মানুষের মৃত্যু হয় আত্মহত্যার কারণে। এই সংখ্যাটা ম্যালেরিয়া কিংবা ব্রেস্ট ক্যান্সারের থেকে বেশি। অন্যদিকে ধনী দেশগুলিতে মহিলার তুলনায় পুরুষদের আত্মহত্যার ঘটনা তিনগুণ বেশি।

তবে আত্মহত্যার ঘটনা রোখা সম্ভব বলে জানিয়েছেন, ডব্লুএইচও-র ডিরেক্টর জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রেসাস। প্রত্যের দেশের কাছেই আত্মহত্যা প্রতিরোধে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।