টিডিএন বাংলা ডেস্ক : আমেরিকায় বর্ণবাদের বিরুদ্ধে ইউরোপজুড়ে প্রচন্ড বিক্ষোভ হয়েছে। করোনাভাইরাস মোকাবেলার জন্য যখন ইউরোপের দেশে দেশে সমাবেশ করার ওপর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে তখন তা উপেক্ষা করে এই বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হলো।

গত সপ্তাহে আমেরিকার মিনেসোটা অঙ্গরাজ্যের মিনেপোলিস শহরে একজন শ্বেতাঙ্গ পুলিশ অফিসার জর্জ ফ্লয়েড নামে একজন কৃষ্ণাঙ্গ নাগকিকে হত্যা করার পর আমেরিকার বিভিন্ন শহরে বর্ণবাদ ও প্রশাসনিক সহিংসতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় ইউরোপের বিভিন্ন দেশে এই বিক্ষোভ হচ্ছে।
ব্রিটেনের রাজধানী লন্ডনে বিক্ষোভকারীরা সিরিজ বিক্ষোভ করেন। এসব বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে হাজারো মানুষ মার্কিন বর্ণবাদের বিরুদ্ধে ‘নো জাস্টিস, নো পিস, নো রেসিস্ট পুলিশ’ বলে স্লোগান দেন। আমেরিকার বিক্ষোভকারীদের প্রতি সংহতি প্রকাশ করে তারা সেন্ট্রাল লন্ডনে মার্চ করেন। এছাড়া, ব্রিটিশ পার্লামেন্ট স্কয়ারের সামনে হাজার হাজার মানুষ হাঁটু গেঁড়ে বর্ণবাদের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেন। লন্ডনে আরো বিক্ষোভের পরিকল্পনা করছেন আয়োজকরা।

নেদারল্যান্ডের রোটারড্যাম শহরে হাজার হাজার মানুষ শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ বিক্ষোভ করেছেন। সুইডেনের স্টকহোম শহরে জনসমাবেশের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে হাজার হাজার মানুষ মার্কিন বর্বরতার বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করেন। গ্রিসের রাজধানী এথেন্সেও বিক্ষোভ হয়েছে। এসময় বিক্ষোভকারীদের অনেকেই মার্কিন দূতাবাস লক্ষ্য করে ফায়ারবোম ছোঁড়ে। ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে প্রায় ১৫ হাজার মানুষের বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে। সেখানেও করোনা নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে বিক্ষোভ মিছিল হয়। পার্সটুডে