টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে জোরালো তাণ্ডব চালাচ্ছে মারণ করোনা ভাইরাস। আর সেই কারণে লকডাউন শুরু হয়েছে গোটা বিশ্বেই। লকডাউনে মানুষকে বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া বাড়ি থেকে বেরোতে বারণ করা হয়েছে। কিন্তু এক অদ্ভুত কাণ্ড ঘটে গেল রাশিয়ায়। লকডাউনে জোরে কথা বলায় ৫ জনকে গুলি করে খুন করার অভিযোগ এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম রাশিয়ার রায়াজান অঞ্চলের ইয়েলাতমার গ্রামে। পুলিশ ইতিমধ্যে অভিযুক্ত বন্দুকবাজ আনন্ত ফ্রাঞ্চিকভ (৩১)কে খুনের অভিযোগে গ্রেফতার করেছে।

পুলিশ জানিয়েছে, লকডাউনের মধ্যে কয়েক জন ওই ফ্রাঞ্চিকভের বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে জোরে জোরে কথা বলছিলেন। শুনশান রাস্তায় অত জোরে কথাবার্তায় মেজাজ হারিয়ে ফেলেন তিনি। ফ্রাঞ্চিকভ প্ৰথমে তাঁর ওই পাঁচ প্রতিবেশীকে আস্তে কথা বলার অনুরোধ করেন, পরে চুপ করতেও বলেন। কিন্তু ওই পাঁচজন সে কথায় কান না দিয়ে জোরে জোরে কথা চালিয়ে যান। তখনই মাথার ঠিক রাখতে পারেননি অভিযুক্ত। জেরায় নিজের দোষ কবুল করেছেন তিনি। এরপরেই তিনি গুলি চালান। ঘটনাস্থালেই ৪ জন পুরুষ ও একজন মহিলার মৃত্যু হয়।

যদিও পুলিশকে তিনি জানিয়েছেন, আত্মরক্ষার্থেই তিনি গুলি চালিয়েছিলেন। রাশিয়ার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। আনন্ত ফ্রাঞ্চিকভের স্ত্রী স্থানীয় এক হাসপাতালের ডাক্তার। স্বামীর এহেন কাণ্ডকারখানা তাঁকেও অবাক করেছে!