টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ভারত যদি অ্যান্টিম্যালেরিয়ার ওষুধ রপ্তানি না করে তবে কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে, এবার ন্ধুত্বকে পাশে সরিয়ে রেখে এভাবেই হুঁশিয়ারি দিতে শোনা গেল মার্কিন প্রেসিডেন্ট তথা নরেন্দ্র মোদির বিশেষ বন্ধু ডোনাল্ড ট্রাম্পকে। চিন, ইতালির পর এবার আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত বলে জানা যাচ্ছে। হু হু করে সে দেশে বাড়ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত তিন লক্ষাধিক মানুষের দেহে এই ভাইরাসের উপস্থিতি মিলেছে আমেরিকায়। এরই মধ্যে, আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ভারতবর্ষে করোনার চিকিৎসায় ব্যবহৃত ম্যালেরিয়ার প্রতিষেধক হাইড্রোক্সিক্লোরোক্যুইনের রফতানির উপরে থাকা বিধিনিষেধ সরিয়ে নেওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে। তবে অনুরোধে মিশে রয়েছে হুমকিও!

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, ভারত যদি অ্যান্টিম্যালেরিয়াল ওষুধ মার্কিন মুলুকে রপ্তানির অনুরোধ নাকচ করে, তাহলে তার ফল ভুগতে হবে ভারতকে। হোয়াইট হাউসে ব্রিফিংয়ের সময়ে ট্রাম্প জানান, ‘আমেরিকার সঙ্গে ভারতের সম্পর্ক খুব ভাল। আমি বলেছি, আপনি যদি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেন, তাহলে খুবই ভাল হবে। যদি তিনি একান্তই এদেশে ওই ওষুধ আসতে না দেন, তাহলেও আমি অবাক হব। আমার কিছু বলার থাকবে না। তবে তার ফল ভুগতে হতে পারে ভারতকে।’

সূত্রের খবর, হাইড্রোঅক্সিক্লোরোকুইনের অর্ডার মার্চ মাসে দিয়েছিল আমেরিকা। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হুঁশিয়ারি বার্তায় বলেন, ‘বহু বছর ধরে ভারত বাণিজ্যের ক্ষেত্রে আমেরিকার সুবিধে নিয়েছে। তাই এখন যদি ভারত পিছিয়ে যায় আমি অবাকই হব। তবে যাই সিদ্ধান্ত হোক না কেন প্রধানমন্ত্রীকে আমায় তা জানাতে হবে।’ ট্রাম্পের এই হুঁশিয়ারির পর নয়াদিল্লি থেকে কোনও জবাব এখনও দেওয়া হয়নি।