নিজস্ব সংবাদদাতা,টিডিএন বাংলা, দিল্লি : আবার ব্যাক্তি স্বাধীনতা বিরোধী মন্তব্য করলেন বাংলাদেশ থেকে বহিষ্কৃত নারী বিদ্বেষী লেখিকা তসলিমা নাসরিন। বরাবর সমাজ ও মানবতা বিরোধী মন্তব্য করে মিডিয়ায় হাইলাইট হওয়া ভারতে আশ্রয় নেওয়া তসলিমা ফেসবুকে লেখেন, ‘শ্রীলংকা বোরখা নিষিদ্ধ করেছে, জনমানুষের নিরাপত্তার জন্য। বোরখা পরে আত্মঘাতি বোমা হেঁটে বেড়াচ্ছে, আর আমরা তাকে নিরীহ মেয়েমানুষ ভেবে তার আশে পাশে নিরাপদ বোধ করছি, এই বোকামোর দিন শেষ হয়েছে।’

তসলিমা লিখেছেন, ‘বোরখা পৃথিবীর সব জায়গায় নিষিদ্ধ হওয়া উচিত। বোরখা নিষিদ্ধ হওয়ার পর মেয়েরা মানুষের অধিকার নিয়ে চলাফেরা করতে পারবে, চলমান কারাগারের ভেতর মেয়ে হয়ে জন্ম নেওয়ার শাস্তি ভোগ করতে হবে না, নামপরিচয়হীন অবয়বহীন একটি ভূতুড়ে জীবন যাপন করতে হবে না। মেয়েদের জন্য এর চেয়ে বড় সুখবর আর কী হতে পারে! যে মেয়েরা বলে বোরখা পরতে তাদের ভালো লাগে, বা এটা তাদের মানবাধিকার -তারা মগজধোলাই হওয়ার কারণে বলে।’

তবে তসলিমার মন্তব্যকে গুরুত্ব দিতে নারাজ বুদ্ধিজীবীরা। তাঁদের মতে, তসলিমা সব সময় নারী স্বাধীনতার নামে পারিবারিক ও সামাজিক বিষয়ে হস্তক্ষেপ করেন। সাংবিধানিক ধর্মীয় ও মানুষের মৌলিক অধিকারকে স্বীকার করেননা। পরিবার, বাবা, মা আত্মীয়দের সম্মান পর্যন্ত যিনি করেন না তিনি কী বললেন তা নিয়ে আলোচনা করা সুশীল সমাজের কাজ নয়।