টিডিএন বাংলা ডেস্ক: রুশ পরিচালিত নর্ড স্ট্রিম-২ গ্যাস পাইপলাইন নির্মাণ প্রকল্পে সম্পৃক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো অচিরেই নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়বে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন জার্মানিতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদ‚ত রিক গ্রিনেল। এই পাইপলাইনের সাহায্যে বাল্টিক সাগরের তলদেশ দিয়ে জার্মানিতে সরাসরি গ্যাস সরবরাহ করা হবে। জার্মানির বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান এই প্রকল্পের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। রোববার যুক্তরাষ্ট্রের একজন সিনিয়র কর্মকর্তার বরাতে এক প্রতিবেদনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে লন্ডন ভিত্তিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
প্রতিবেদনে বলা হয়, এর আগে রাশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যিক ও সামরিক সম্পর্ক রাখায় চীন ও ইরানসহ বিশ্বের বেশ কিছু দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা বা নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। রুশ জ্বালানির ওপর নির্ভরশীল দেশ জার্মানিকে মস্কোর হাতে বন্দি বলে অভিযোগ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘অবশ্যই ১১ বিলিয়ন ডলার মূল্যের গ্যাস পাইপলাইনের কাজ জার্মানির এখনই বন্ধ করে দেওয়া উচিত।’
পাইপলাইনটির মাধ্যমে বাল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে জার্মানি সরাসরি গ্যাস সরবরাহ করতে পারবে। যেখানে পরবর্তী সময়ে তাদের মিত্র দেশগুলো সংযুক্ত হতে পারবে। ফলে ইউক্রেন একটি বড় অঙ্কের গ্যাস ট্রানজিট ফি পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়ে পড়বে, যা দেশটি এখন পাচ্ছে।
জার্মানিতে অবস্থিত মার্কিন দ‚তাবাসের এক মুখপাত্র বলছেন, ‘জার্মানিস্থ যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদ‚ত রিচার্ড গ্রেনেল ইতোমধ্যে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানকে চিঠি দিয়ে বিষয়টি অবহিত করেছেন।’
রুশ পরিচালিত নর্ড স্ট্রিম-২ গ্যাস পাইপলাইন নির্মাণ প্রকল্পে সম্পৃক্ত প্রতিষ্ঠানগুলো অচিরেই নিষেধাজ্ঞার মুখে পড়বে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন জার্মানিতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদ‚ত রিক গ্রিনেল। এই পাইপলাইনের সাহায্যে বাল্টিক সাগরের তলদেশ দিয়ে জার্মানিতে সরাসরি গ্যাস সরবরাহ করা হবে। জার্মানির বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান এই প্রকল্পের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। রোববার যুক্তরাষ্ট্রের একজন সিনিয়র কর্মকর্তার বরাতে এক প্রতিবেদনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে লন্ডন ভিত্তিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স।
প্রতিবেদনে বলা হয়, এর আগে রাশিয়ার সঙ্গে বাণিজ্যিক ও সামরিক সম্পর্ক রাখায় চীন ও ইরানসহ বিশ্বের বেশ কিছু দেশের ওপর নিষেধাজ্ঞা বা নিষেধাজ্ঞার হুমকি দিয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন। রুশ জ্বালানির ওপর নির্ভরশীল দেশ জার্মানিকে মস্কোর হাতে বন্দি বলে অভিযোগ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেন, ‘অবশ্যই ১১ বিলিয়ন ডলার মূল্যের গ্যাস পাইপলাইনের কাজ জার্মানির এখনই বন্ধ করে দেওয়া উচিত।’
পাইপলাইনটির মাধ্যমে বাল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে জার্মানি সরাসরি গ্যাস সরবরাহ করতে পারবে। যেখানে পরবর্তী সময়ে তাদের মিত্র দেশগুলো সংযুক্ত হতে পারবে। ফলে ইউক্রেন একটি বড় অঙ্কের গ্যাস ট্রানজিট ফি পাওয়া থেকে বঞ্চিত হয়ে পড়বে, যা দেশটি এখন পাচ্ছে।
জার্মানিতে অবস্থিত মার্কিন দ‚তাবাসের এক মুখপাত্র বলছেন, ‘জার্মানিস্থ যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদ‚ত রিচার্ড গ্রেনেল ইতোমধ্যে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠানকে চিঠি দিয়ে বিষয়টি অবহিত করেছেন।’