ছবি: গুগল

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: মার্কিন ধর্মযাজককে মুক্তি দেওয়ার পর তুরস্কের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। যাজক ব্রানসনকে মুক্তি দেওয়ার কয়েকদিন পর এই কথা বললেন পম্পেও। গত সপ্তায় আদালতের নির্দেশে মার্কিন যাজক ব্রানসনকে গৃহবন্দীদশা থেকে মুক্তি দেয় তুরস্ক। মুক্তি পেয়েই স্বদেশে পাড়ি জমান যাজক। তার বিরুদ্ধে তুরস্কে সন্ত্রাসে ইন্ধন যোগানের সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ ছিল।পম্পেও জানিয়েছেন, নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার ব্যাপারে স্বল্প সময়ের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেবে যুক্তরাষ্ট্র। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের সাথে আলোচনার পর বুধবার এই মন্তব্য করেন মাইক পম্পেও। সৌদি সাংবাদিক কামাল খাশোগির নিখোঁজ এবং খুনের অভিযোগ নিয়ে আলোচনার জন্য তুরস্কে আকস্মিক সফর করলেন মাইক পম্পেও। তিনি বলেন, ব্রানসনকে মুক্তি দেওয়ার পর তাকে নিয়ে তুরস্কের ওপর নিষেধাজ্ঞা আর রাখার যৌক্তিকতা নেই।

বুধবার পম্পেওর সাথে সাক্ষাৎ করেন তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসগলু। তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী পম্পেওর সাথে এব্যাপারে কোনো আলোচনা না করলেও মার্কিন নিষেধাজ্ঞাকে অযৌক্তিক বলেন তিনি। মেভলুত বলেন আমাদের সম্পর্কের মাঝে কোনো নিষেধাজ্ঞা থাকা উচিত নয়। নিষেধাজ্ঞা থাকলে সম্পর্ক অগ্রসর হতে পারে না।

সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে মার্কিন যাজক ব্রানসনকে গ্রেফতার এবং বিচারের কারণে তুর্কি বিচারমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র। নিষেধাজ্ঞার কারণে তুরস্কের মুদ্রার দাম অনেকখানি নেমে যায়। মাইক পম্পেও নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার কথা বলার পর মুদ্রার দাম বাড়তে শুরু করেছে।