টিডিএন বাংলা ডেস্ক: যার সঙ্গ ছাড়া আপনার একমুহূর্তও কাটে না। যে আপনাকে নীরবে নিশাচর হতে শিখিয়েছে একাকী। আপনার রিচার্জের চাইতেও যার রিচার্জের কথা ভাবেন বেশি আপনি। আপনার সেই প্রানপ্রিয় হ্যান্ডসেটটি অজান্তেই আপনার শরীরের কতটা ক্ষতি করছে জানলে হয়তো চমকে উঠবেন। বিশেষ করে এন্ড্রয়েড ফোনের রেডিয়েশন মানবদেহে মারাত্মক ক্ষতি করছে বলে জানিয়েছেন মার্কিন গবেষকরা।

সম্প্রতি আমেরিকার ডিপার্টমেন্ট অফ পাবলিক হেলথের এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, স্মার্ট ফোন সবসময় শরীরের কাছাকাছি রাখা খুবই বিপদজনক। প্যান্টের বা জামার পকেটে মোবাইল নিয়ে ঘোরাফেরার চাইতে ব্যাগের ভিতরেই মোবাইল রাখা শ্রেয় বলে জানিয়েছে তারা। তাছাড়া বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বহু আগেই হুঁশিয়ারি দিয়ে জানিয়েছে, এন্ড্রয়েড ফোনের খুব বেশি ব্যাবহার ক্যান্সারের আশংকা বাড়ায়। এবার মার্কিন ঐ গবেষণা বলছে, হতাশা, অবসাদ, একাকিত্ব, এমনকি আত্মহত্যার প্রবণতাও বাড়ায় এন্ড্রয়েড ফোন, ইন্টারনেট, অনলাইন গেমস।

আমেরিকার ঐ স্বাস্থ্য সংস্থার এক শীর্ষকর্তা আরো জানিয়েছেন, ঘুমানোর সময় বিছানায় মোবাইল রাখা একেবারেই উচিত নয়। যখন সিগনাল বা চার্জ খুব কম থাকে তখন মোবাইল ব্যবহার না করারও পরামর্শ তাঁর।

কারণ সেই সময় বেশি ক্ষতি করে মোবাইল। হেডফোনও খুব বেশি ব্যাবহার না করার পরামর্শ দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এর থেকে হতে হতে পারে ব্রেইন টিউমার, মাথা ব্যাথা, স্মৃতিশক্তি লোপ, কানে কম শোনা এমনকি ঘুমেরও ব্যাঘাত ঘটাতে পারে।

এমন চাঞ্চল্যকর রিপোর্টে আর সবাই চিন্তিত হলেও ইয়াং জেনারেশন মোটেই বিচলিত নন, কেননা তাদের মস্তিষ্ক এন্ড্রয়েড আতঙ্কের চাইতে ব্রেকআপাতঙ্কেই বেশি সক্রিয়!