টিডিএন বাংলা ডেস্ক : হিসাব বহির্ভূত সম্পত্তি রাখার মামলায় তামিলনাড়ুর ক্ষমতাসীন দল এআইএডিএমকে নেত্রি শশিকলা নটরাজনকে সুপ্রিম কোর্ট দোষী সাব্যস্ত করার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই নতুন দলনেতার নাম ঘোষণা করা হয়েছে। মঙ্গলবার কুভাথুর রিসোর্টে বৈঠক শেষে দলের বিধায়করা মহাসড়কমন্ত্রী ইদাপ্পাদি কে পালানিস্বামীকে বিধানসভায় সরকার দলীয় নেতা নির্বাচন করেছে।
গত বছরের ডিসেম্বরে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান জয়ললিতা। এরপর জয়ললিতার দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সাথী  ও পনিরসেলভামকে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী করা হয়। তবে জয়ার আরেক রাজনৈতিক সঙ্গী শশিকলা রাজনৈতিক ক্ষমতার মঞ্চে এসে প্রথমে দলের সাধারণ সম্পাদক, পরে এআইএডিএমকে’র পরিষদীয় দলের নেত্রী নির্বাচিত হন । মুখ্যমন্ত্রী পদ থেকে পদত্যাগ পনিরসেলভাম। কিন্তু দু’দিন পরেই বিদ্রোহী হয়ে ওঠেন তিনি এবং প্রকাশ্যে জানিয়ে দেন তাকে জোর করে পদত্যাগ করানো হয়েছে।
রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জয়ললিতার বিরুদ্ধে হিসাব বহির্ভূত সম্পত্তি রাখার যে মামলা চলছিল সুপ্রিম কোর্টে তাতে শশিকলার নাম ছিল। মঙ্গলবার সেই মামলায় নিম্ন আদালতের রায় বহাল রাখে শীর্ষ আদালত। ফলে, শশিকলার চার বছরের জেল বহাল রইল। আইন অনুযায়ী, এই সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার পরের ছয় বছর তিনি আর ভোটে দাঁড়াতে পারবেন না।
মঙ্গলবার রায়ের ঘোষণার পরপর এআইএডিএমকে’র পরিষদীয় দলের বৈঠক বসে। এতে পনিরসেলভামসহ তাকে সমর্থনদানকারী ১২ এমপি ও আট এমএলএকে দল থেকে বহিস্কার করা হয়। পরে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়, পালানিস্বামীকে সর্বসম্মতভাবে রিষদীয় দলনেতা নির্বাচিত করা হয়েছে। শিগগিরই রাজ্যপালের সঙ্গে দেখা করে সরকার গঠনের দাবি জানাবেন তিনি।