টিডিএন বাংলা ডেস্ক : পাঞ্জাবে ধর্মগ্রন্থ চুরি ও ধর্মীয় স্থান অপবিত্র করার অভিযোগের তদন্তে ডাক পড়ল বলিউডের খিলাড়ি অভিনেতা অক্ষয় কুমারের। পাঞ্জাব পুলিশের এক ট্যুইটে এ তলবের খবর প্রকাশিত হয়েছে।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের জুন মাসে পাঞ্জাবের বুড়িযাওয়ার সিংওয়ালা গ্রামে পবিত্র ধর্মগ্রন্থকে অপবিত্র করার ঘটনা ঘটে। একই বছর ১২ অক্টোবর বারগাড়ি গ্রামে ঘটে একই ধরনের আরেকটি ঘটনা।

সেই সময় এ দুই ঘটনার প্রতিবাদে পাঞ্জাবের ফরিদকোট, মোগা ও সাংগ্রুর জেলাসহ বিভিন্ন স্থানে আন্দোলন শুরু হয়। ধর্মীয় স্থান অপবিত্র করার অভিযোগে ক্ষুব্ধ হয় শিখ সম্প্রদায়।

ওই আন্দোলনে মোগার বেহবালকালান গ্রামে পুলিশের গুলিতে দুই আন্দোলনকারীর মৃত্যু হয়। আহত হন ৭৫ জন। ওই ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিশন বসায় কংগ্রেস সরকার। সেই কমিশন ধর্মীয় গুরু ধর্ষক রাম রহিম এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলে অভিযোগ আনে।

এর পর তারা আরও অভিযোগ করেন যে, বলিউড অভিনেতা অক্ষয় নাকি রাম রহিমের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী এবং উপমুখ্যমন্ত্রীর মধ্যস্থতার চেষ্টা করেছিলেন। তবে বরাবরই এ অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন অক্ষয়। তিনি দাবি করেন, রাম রহিমের সঙ্গে তিনি কখনও দেখাই করেননি।

ওই তদন্তে আরও ডাক পড়েছে পাঞ্জাবের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী প্রকাশ সিং বাদল এবং তার ছেলে প্রাক্তন উপমুখ্যমন্ত্রী সুখবির সিং বাদলের। সেই সময় সুখবির সিং পুলিশকে এ ঘটনায় তেমন কোনো ব্যবস্থা নিতে দেননি বলে অভিযোগ রয়েছে।

তাদের তিনজনকে ভিন্ন ভিন্ন দিনে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে ১৬ নভেম্বর অমৃতসরের সার্কিট হাউসে হাজিরা দিতে বলা হয়েছে। সুখবিরকে ১৯ নভেম্বর ও অক্ষয়কে আসতে বলা হয়েছে ২১ নভেম্বরে।