টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ডিটেনশন ক্যাম্পে মৃতের সংখ্যা নিত্যদিন বেড়েই চলেছে। এই তালিকায় সর্বশেষ সংযোজন গোয়ালপাড়ার সেনা মুন্ডা (৭০)। মঙ্গলবার গুয়াহাটির বি বরুয়া ক্যান্সার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশাস ত্যাগ করেন তিনি।

২০১৪ সালের পিঠে ‘বিদেশি’ তকমা সেঁটে গোয়ালপাড়ার রংজুলির বাসিন্দা সেনা মুন্ডাকে ডিটেনশন ক্যাম্পে নিয়ে যায় সীমান্ত পুলিশ। তখন থেকে ডিটেনশন কম্পেই ছিল তার ঠিকানা।

প্রচন্ড দরিদ্রতা ও পর্যাপ্ত নথিপত্রের অভাবে ট্রাইব্যুনালের এই একতরফা রায়কে হাইকোর্টে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারেনি সোনার পরিবার। তবে স্থানীয়দের মতে, সেনা মুণ্ডার ভারতীয় নাগরিকত্ব নিয়ে কারও মনে সংশয় থাকার প্রশ্নই ওঠে না।

গোয়ালপাড়ার জেল সুপার জানিয়েছেন, দীর্ঘদিন ধরেই ক্যান্সারে ভুগছিলেন তিনি। গতমাসে হটাৎ গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে গুয়াহাটির বি বরুয়া ক্যান্সার হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। প্রায় একমাস চিকিৎসাধীন থাকার পর তিনি মারা যান। যুগশঙ্খ