টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ফের খবরের শিরোনামে যোগী আদিত্যনাথের রাজ্য উত্তরপ্রদেশ। তবে এবার জাতপাতের ঘটনার কারণে। দলিত মহিলাদের মন্দিরে প্রবেশে বাধা, এমনকি পুজোও দিতে দেওয়া হয়নি ওই মহিলাদের। কারণ শুধু একটাই দলিত। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম উত্তরপ্রদেশের বুলন্দশহর জেলার একটি মন্দিরে। ঘটনায় রীতিমতো উত্তেজনা ছড়িয়েছে ওই এলাকায়। ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই শুরু হয়ে গিয়েছে নয়া বিতর্ক। গত ২৫ অক্টোবর ঘটনাটি ঘটলেও সম্প্রতি সেটি সামনে এসেছে।

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বাল্মিকী সম্প্রদায়ের কয়েকজন মহিলা মন্দিরে পুজো দেওয়ার জন্য প্রবেশ করতে গেলে, তাঁদের পথ আটকায় এক যুবক। জানিয়ে দেয় ওই মহিলাদের মন্দিরে প্রবেশ করার অধিকার নেই। এই সময় আরও এক যুবককে দেখা যায়, মন্দিরের মূল দরজায় তালা দিতে। তালা দিয়ে সেও ওই যুবকের পাশে এসে মহিলাদের ভিতরে প্রবেশ করতে বাধা দেয়।

এদিকে, এতদিন পুজো দেওয়ার অধিকার থাকলেও, হঠাৎ করে বাধাপ্রাপ্ত হওয়ায় দুই যুবকের উপর ক্ষোভ উগড়ে দিতে থাকেন ওই মহিলারা। জানিয়ে দেন, লাঠিসোটা দিয়ে মেরে ফেললেও তাঁরা ওই জায়গা থেকে সরবেন না। তাঁরা পুজো দেবেন। তাঁদের মধ্যে থেকে এক মহিলা জানান, গ্রামবাসীদেরও ডেকে আনা হোক। তাঁরাও দেখুক কেবল দলিত সম্প্রদায়ের হওয়ার জন্যই মন্দিরে পুজো দিতে পারছেন না তাঁরা। এদিকে, ওই দুই যুবক কিছুতেই নিজেদের অবস্থান থেকে সরেননি। তাঁরা বলেন, এটি ঠাকুরদের মন্দির। এখানে বহুদিন ধরে ব্রাহ্মণ এবং ঠাকুররা পুজো দিয়ে থাকে। তাই দরজা খোলা যাবে না। এদিকে, ইতিমধ্যেই এই ঘটনায় তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। দায়ের হয়েছে মামলাও। ‌‌‌