টিডিএন বাংলা ডেস্ক: তৃণমূলের সময় টা এখন খুব খারাপ চলছে তাই ভাড়া করা লোক দিয়ে দল চালাচ্ছে। তৃণমূলকে বৈঠকে প্রশান্ত কিশোরের উপস্থিতি নিয়ে উল্টো রথযাত্রায় অংশগ্রহণ করে তৃণমূল কে এমনই কটাক্ষ করলেন বিজেপি নেতা তথা কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয়। কৈলাস বিজয়বর্গীয় এদিন
এদিন বাগবাজার মোড় থেকে মহাজাতি সদন পর্যন্ত রথযাত্রায় অংশ নেন।

এদিন তৃণমূল ভবনে দলীয় বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠকে বসেন তৃণমূল নেত্রী। ওই বৈঠকের আগে কালো গাড়িতে ঢুকতে দেখা যায় প্রশান্ত কিশোরকে। ২০২১ সালের আগে তৃণমূলের রণনীতি তৈরির দায়িত্ব নিয়েছেন ভোটগুরু। ইতিমধ্যেই কাজ শুরু করে দিয়েছেন প্রশান্ত। এনিয়েই কৈলাসের কটাক্ষ, এত খারাপ দিন এসেছে তৃণমূলের, যে পেশাদার ব্যক্তিকে দিয়ে দল চালাতে হচ্ছে। মানুষের উপর বিশ্বাস চলে গিয়েছে তৃণমূলের।

প্রসঙ্গত, নরেন্দ্র মোদীর হাত ধরে শুরু হয়েছিল প্রশান্ত কিশোরের রাজনৈতিক যাত্রা। ২০১২ সালে গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী থাকাকালীন প্রশান্তের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন মোদী। সে বার গুজরাটে প্রবল প্রতিষ্ঠান বিরোধিতার হাওয়া। সেই বিরোধিতাকে ঠেকিয়ে প্রত্যাবর্তন করেছিলেন মোদী। পরে ২০১৪ সালে লোকসভা ভোটেও ‘অচ্ছে দিন’-এর হাওয়া তুলেছিলেন প্রশান্ত। ‘চায়ে পে চর্চা’ কর্মসূচিও তাঁর মস্তিষ্কপ্রসূত। সেই প্রশান্তের সঙ্গে এবার চুক্তিবদ্ধ হয়েছে তৃণমূল। ২০২১ সালে মমতাকে ভোট বৈতরণী পার করানোই তাঁর লক্ষ্য।

কাঁচরাপাড়া পুরসভার ৫ কাউন্সিলরকে দলে ফিরিয়ে এনেছে তৃণমূল। এতে মুখ পুড়েছে বিজেপির। কৈলাসের বক্তব্য, ভয় দেখিয়ে গুন্ডাগিরি করে দলে ফেরাচ্ছে তৃণমূল। নতুন করে আর নেতা তৈরি হচ্ছে না।