টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বুধবার ঈদের দিন মিষ্টির প্যাকেট নিয়ে কাজী সাহেবের বাড়িতে গিয়ে অগত্যা হাজির হন ভোপালের নব নর্বাচিত সংসদ স্বাধী প্ৰজ্ঞা ঠাকুর!

ঊনিশের লোকসভা নির্বাচনে ভোপালের এই সাংসদ একাধিকবার জাতীয় মিডিয়ায় শিরোনামে আসেন। গান্ধীজির হত্যাকারী গডসেকে ‘ সত্যিকারের দেশপ্রেমী ‘ বলে তিনি বিতর্ক তৈরী করেন।
শহীদ হেমন্ত কারকরের মৃত্যু নিয়েও তিনি বিতর্কিত মন্তব্য করে ছিলেন।

গতকাল মুসলিম কাজীর বাড়িতে তিনি হটাৎই মিষ্টির প্যাকেট নিয়ে হাজির হন।
যদিও সঙ্গে থাকা আজতক সাংবাদিককে প্ৰজ্ঞা ঠাকুর বলেন, তার এই আগমন হটাৎ করে নয়। তিনি আগে থেকেই জানতেন ঈদ উৎব আসতে চলেছে। আর সেজন্যই তাঁকে শুভেচ্ছা বিনিময়ের জন্য আসতেই হতো।

কাজী সাহেবের বাড়িতে উপস্থিত মিডিয়া প্রতিনিধিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্ৰজ্ঞা ঠাকুর বলেন,” ভোপাল লোকসভা কেন্দ্রের সাংসদ আমি। আবশ্যিক ভাবে এটা আমাদের কর্তব্য যে আমরা প্রতিটি পারবনে একে অন্যের সঙ্গে মিলেমিশে থাকি। আমাদের পারবনে আপনারা শুভেচ্ছা জানান। আপনাদের পারবনে আমরা শুভেছা জানাই।”

কাজী সাহেবের পরিবারের মহিলাদের সঙ্গেও কথোপকথন করেন তিনি । বাড়ির শিশুদেরকেও আদর করেন। গাল টিপে দেন। গালে তুলে মিষ্টি খাওয়ান।

তবে মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্ত প্রজ্ঞা ঠাকুরের সংখ্যালঘুদের প্রতি এ হেন নমনীয় আচরনে রাজনৈতিক তরজা কিন্তু চলছে। অনেকে বলছেন, কট্টর হিন্দুত্ববাদী বলে পরিচিত প্রজ্ঞার হটাৎ ঈদ প্রেম কেন?