টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ভোট শুরুর অনেক আগে থেকে বিজেপি বিরোধী জোটে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছেন চন্দ্রবাবু নায়ডু। সপ্তম দফার ভোটগ্রহণ এখনও শেষ হয়নি। এর মধ্যেই বিজেপি বিরোধী জোট গড়তে তৎপর হয়ে উঠলেন টিডিপি প্রধান চন্দ্রবাবু নাইডু। শনিবার সকালে দিল্লিতে কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করলেন চন্দ্রবাবু। রাজনৈতিক মহলের খবর বিজেপি বিরোধী জোট গড়া নিয়ে তাঁর সঙ্গে কথা হয়েছে রাহুলের। সম্প্রতি পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলের প্রচারে এসেছিলেন চন্দ্রবাবু। শুক্রবার তিনি দিল্লিতে আসেন। আজ শনিবার তিনি রাহুলের সঙ্গে দেখা করেন। এরপর মায়াবতী ও অখিলেশ যাদবের সঙ্গে তাঁর আলোচনা নিয়ে জল্পনা তুঙ্গে। ফলে ভোট পরবর্তী জোট নিয়ে জল্পনা এখন থেকেই জোরালো হতে শুরু করল। শুক্রবার চন্দ্রবাবু দেখা করেছেন সিপিএম সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি ও আম আদমি পার্টির আহ্বায়ক অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে। ভোট পরবর্তী জোট নিয়ে তাদের মধ্যে কথা হয়েছে বলে খবর। এদিকে, কেসিআর এর নতুন কোনও জোট গঠনের চেষ্টাকে টেক্কা দিতেই নাইডু অতি তৎপর, এমনটাই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। কারণ ওয়াইএসআর কংগ্রেস, নবীন পট্টনায়ক, স্ট্যালিন, পিনারাই বিজয়ন সহ একঝাঁক বিরোধী নেতার সঙ্গে সখ্যতা রেখে চলেছেন কে চন্দ্রশেখর রাও।

ভোটের ফল হাতে পেতে ২৩ মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। তার আগেই সলতে পাকাতে শুরু করল বিরোধী শিবিব। তবে বিজেপিকে পেছনে ফেলে সরকার গঠনের মতো অবস্থায় এলে বিরোধীরা কী করে সেটাই দেখার। তখন কংগ্রেস মুক্ত জোট নাকি কংগ্রেসকে সঙ্গে নিয়ে জোট সেই প্রশ্নটাই হয়তো প্রধান হয়ে দেখা দেবে। তবে হাল ছাড়ছেন না চন্দ্রবাবু।

ভোট শুরুর অনেক আগে থেকে দিল্লির রাজনীতিতেত বিজেপি বিরোধী জোট গড়ার প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। তার প্রধান কারিগর চন্দ্রবাবুই। এমনকী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও বারবার বিজেপি বিরোধী জোটে মুখ্য ভূমিকা নিয়েছেন। বিজেপি যদি সরকার গড়ার মতো অবস্থায় না থাকে, তাহলে বিরোধী জোটের সমীকরণ কী হবে, সেটাই এখন দেখার।