টিডিএন বাংলা ডেস্ক: কেন্দ্রের সংশোধনী নতুন নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে গত কয়েকদিন ধরেই অগ্নিগর্ভ বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশ। যোগীরাজ্যে বিক্ষোভের আগুনে জ্বলছে লখনউ, কানপুর, অমেঠি, প্রয়াগরাজ, গোরখপুর, ফিরোজাবাদ। বিক্ষোভকারীদের ‘সবক’ শেখানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন খোদ রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান যোগী আদিত্যনাথ। আর সেই কারনে বিক্ষোভ দমনে ‘নির্বিচারে’ গুলি চালিয়ে চলেছে উত্তরপ্রদেশের পুলিশ।

অভিযোগ উঠেছে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভেও পুলিশ গুলি চালিয়েছে বলে। পুলিশের গুলিতে নিহতের সংখ্যাও লাফিয়ে বাড়ছে। সরকারিভাবে সংখ্যাটা ১৯ ছুঁয়েছে। বেসরকারি মতে নিহতের সংখ্যা ২১ ছাড়িয়েছে। মৃতদের মধ্যে একটি ৮ বছরের শিশুও রয়েছে। রাষ্ট্রীয় মদতে চলছে ‘‌পুলিশি সন্ত্রাস’‌ চলছে বলেও অভিযোগ তুলেছে ‘‌হম ভারত কি লোগ’‌ মঞ্চ।

যদিও পুলিশের দাবি, গুলিতে নয় পদপিষ্ট হয়েই মৃত্যু হয়েছে ওই বালকের। সঙ্কটজনক অবস্থায় রয়েছেন আরও এক।

প্রসঙ্গত, নাগরিক আইনের প্রতিবাদে সামিল সাড়ে পাঁচ হাজারের ওপরে বিক্ষোভকারিদের আটক করা হয়েছে বলে সংবাদসংস্থা সূত্রের খবর। এছাড়াও ১ হাজার ১১৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।