টিডিএন বাংলা ডেস্ক: উত্তরপ্রদেশের সমাজবাদী পার্টির নেতা মূলায়ম সিং যাদব ও পুত্র তথা প্রাক্তন মুখ‍্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদবকে সম্পত্তি বেকসুর মুক্তি দিল সিবিআই‌। আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিবিহীন সম্পত্তি মামলা থেকে এবার পুরোপুরি স্বস্তি পেলেন পিতা–‌পুত্র। ক্লিনচিট দেওয়া হয়েছে পুত্র প্রতীক যাদব এবং অখিলেশের স্ত্রী ডিম্পল যাদবকেও।

মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে এই মর্মে হলফনামা জমা করেছে সিবিআই।

২০০৫ সালে সপা নেতাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছিলেন বিশ্বনাথ চতুর্বেদী নামে এক ব্যক্তি। তিনি অভিযোগ করেছিলেন মুলায়ম, অখিলেশ, ডিম্পল, প্রতীকের কাছে আয়ের তুলনায় অনেক বেশি সম্পত্তি রয়েছে। আদালতের নির্দেশে তদন্তে শুরু করে সিবিআই। তদন্তে নেমে অবশ্য ‌সিবিআই কিংবা আয়কর দপ্তর যাদব পরিবারের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের প্রমাণ পায়নি। আদালতে হলফনামায় সিবিআই জানিয়েছে, কোনও প্রমাণ না পাওয়ায় ২০১৩ সালের আগস্ট মাসে তদন্ত বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল।

লোকসভা ভোটের মুখে আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন সম্পত্তি নিয়ে নতুন করে পিটিশন করেন পেশায় আইনজীবী বিশ্বনাথ চতুর্বেদী। শীর্ষ আদালত রিপোর্ট চেয়েছিল। এদিন সেই রিপোর্ট পেশ করল সিবিআই। উত্তরপ্রদেশের এই দুই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের কোনও তথ্যপ্রমাণ পাওয়া যায়নি বলে সুপ্রিম কোর্টে হলফনামা জমা করে জানিয়েছে সিবিআই। মুলায়ম সিংয়ের অভিযোগ, ভোটের মুখে হেনস্থা করতেই নতুন করে তাঁদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করা হয়েছিল।

আয়ের সঙ্গে সঙ্গতিহীন সম্পত্তি নিয়ে অভিযোগের প্রেক্ষিতে ২০০৭ সালের ১ মার্চ শীর্ষ আদালত সিবিআই–কে সমাজবাদী পার্টির প্রধানের বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্যি কিনা তদন্ত করে দেখতে নির্দেশ দেয়। আদালতের ওই আদেশকে চ্যালেঞ্জ করে আবেদন করেন মুলায়ম ও অখিলেশ যাদব। কিন্তু ২০১২ সালে বিচারপতিরা সেই আর্জি খারিজ করে দেন। উল্লেখ্য, ২০১৩–র আগস্টেই এই মামলার তদন্ত প্রমাণের অভাবে বন্ধ করে দিতে হয় বলে জানিয়েছে তদন্তকারী সংস্থা। ‌‌‌