টিডিএন বাংলা ডেস্ক : শিডিউলে থাকলেও শেষপর্যন্ত রাজ্যসভায় পেশ হল না নাগরিক অধিকার বিল। কারণ বিরোধীরা ওয়েলে নেমে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। স্লোগান দিতে থাকে। তুমুল হট্টগোলের মধ্যে নাগরিক অধিকার বিল রাজ্যসভায় পেশ হল না। রাফালে নিয়ে এদিন একইভাবে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে লোকসভা।

কেন্দ্রীয়  স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংয়ের বিতর্কিত নাগরিক অধিকার এদিন রাজ্যসভায় পেশ করার কথা ছিল। জানুয়ারিতে এই বিল লোকসভায় পাশ হয়েছে। এখন রাজ্যসভায় পাশের অপেক্ষা। এই বিল নিয়ে অসমে ঝড় বয়ে গেছে। এমনকী প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী অসম সফরে গিয়ে তার আঁচ পেয়েছেন।

বিরোধীদের তুমুল হট্টগোলের জেরে রাজ্যসভা আগামী কাল বেল ১১টা পর্যন্ত মুলতবি করে দেওয়া হয়। আগামী কাল বেলা ১১টায় ফের সভা শুরু হবে। এই বিল পেশের চেষ্টা করবে সরকার।

এদিন দফায় দফায় মুলতবি হয় রাজ্যসভা। যতবার সভা শুরু হয়েছে, ছবিটা বদলায়নি। এদিন রাফালে নিয়ে রাজনাথ রাজ্যসভায় বলেন, আমরা ইতিমধ্যে এই নিয়ে আলোচনা করেছি। এই নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মামলা চলছে। এমন রাজনীতি করা হচ্ছে, যা মানুষকে ভুল পথে চালিত করছে।

এদিন রাফালে নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে লোকসভা। কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে রাফালে নিয়ে যৌথ সংসদীয় কমিটির তদন্ত দাবি করেন। তিনি সব কাজ স্থগিত রেখে রাফালে নিয়ে আলোচনার জন্য নোটিস দেন। পাশাপাশি বলেন, কেন প্রধানমন্ত্রী যৌথ সংসদীয় কমিটিকে দিয়ে তদন্ত করাতে ভয় পাচ্ছেন? আইনমন্ত্রী রবিশঙ্কর প্রসাদ এদিন লোকসভায় আইনজীবীদের বিক্ষোভের বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন। তাঁর কথায়, তিনি আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলে তাঁদের দাবি মেটানোর চেষ্টা করছেন।

এদিকে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বিজয় গোয়েল রাজসভার অধিবেশন বাড়ানোর প্রস্তাব দেন। তবে বিরোধীরা যদি সম্মত হয়, তবে অধিবেশন বাড়ানো হবে বলে জানান তিনি।

এদিন সংসদের সেন্ট্রাল হলে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ীর একটি পোট্রেট উন্মোচন করেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ।