টিডিএন বাংলা ডেস্ক: হিন্দু সংস্কৃতির জন্যই বিশ্বের সবচেয়ে সুখী ভারতীয় মুসলিমরা, এমনটাই দাবি রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সঙ্ঘ প্রধান মোহন ভাগবতের৷ তাঁর বক্তব্য, হিন্দুত্ব কোনও ধর্ম, ভাষা বা দেশের নাম নয়৷ এটি তাঁদের সংস্কৃতি, যাঁরা ভারতে বাস করেন৷ অখিল ভারতীয় কার্যকারী মণ্ডলের বৈঠকে যোগ দিয়ে বর্তমানে ওড়িশায় রয়েছেন মোহন ভাগবত। দেশের বিভিন্ন রাজ্যে থেকে সংগঠনের সদস্যরা ৯ দিনের এই বাত্সরিক বৈঠকে যোগ দেন।

রবিবার সদস্যদের সমাবেশে তাঁর বক্তব্যে বলেন, হিন্দু কোনও ধর্ম নয়। হিন্দু হল একটি সংস্কৃতির নাম। সত্যের সন্ধানের জন্য এই সংস্কৃতির উদ্ভব হয়। কোনও জাতি যখন তার রাস্তা থেকে বিচ্যুত হয় তারা আমাদের কাছে আসে।

আরএসএস প্রধানের কথায়, ‘যখন ইহুদিরা ঘুরে বেড়াচ্ছিল, তখন ভারতই একমাত্র দেশ, তাদের শেল্টার দিয়েছিল৷ পারসিরা তাঁদের ধর্মীয় আচার স্বাধীন ভাবে পালন করতে পারেন একমাত্র ভারতেই৷ ভারতের মুসলিমরা পৃথিবীতে সবচেয়ে সুখী৷ কেন? কারণ, আমরা হিন্দু৷ অনেক ভারতীয়, নিজেদের হিন্দু পরিচয় দিতে লজ্জা পান৷ কিছু এমন মানুষ আছেন, যাঁরা গর্বের সঙ্গে নিজেদের হিন্দু বলেন৷ আসলে কিছু মানুষ নিজেদের হিন্দু পরিচয় লুকনোর চেষ্টা করেন, স্বার্থ সিদ্ধির জন্য৷’

সঙ্ঘ প্রধানের দাবি, আরএসএস কাউকে ঘৃণা করে না৷ তাঁর কথায়, ‘যারা ভারতে জন্মগ্রহণ করেছেন, যারা দেশের জন্য কাজ করছেন, হাতেহাত মিলিয়ে শান্তি স্থাপনের চেষ্টায় রত, সব বৈচিত্রকে সম্মান ও স্বাগত জানান, সেই সব ভারতীয়ই হিন্দু৷’ একই সঙ্গে দেশে গণপিটুনির মতো কোনও ঘটনা কখনও ঘটেইনি বলেও দাবি করেন তিনি৷ বলেন, ‘ভারতে এরকম কোনও দিনই হয়নি৷ লিঞ্চিং শব্দটির উত্‍সটা দেখতে হবে৷ অন্য ধর্মে একসময় এই রকম ঘটনা ঘটত৷’