টিডিএন বাংলা ডেস্ক: করোনা নিয়ে ফেসবুকে ভুয়ো খবর পোস্ট করে আতঙ্ক ছড়ানোর অভিযোগে বিজেপির সাংসদ সৌমিত্র খাঁর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের সাংসদের বিরুদ্ধে সাইবার ক্রাইম শাখায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে বলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শ্যামল সামন্ত রবিবার জানান। এ খবর ছড়িয়ে পড়তেই জেলার রাজনৈতিক মহলে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।    

সৌমিত্র বিরুদ্ধে অভিযোগ, ফেসবুকে ভুয়ো খবর ও ছবি পোস্ট করে করোনা নিয়ে তিনি অযথা আতঙ্ক ছড়ানোর চেষ্টা করেন। তার ফলে স্বাভাবিকভাবেই সাধারণ মানুষ বিভ্রান্ত হন। তা নজরে আসে বাঁকুড়ার সাইবার ক্রাইম শাখার আধিকারিকদের। সাংসদ সৌমিত্র খাঁর বিরুদ্ধে বাঁকুড়া সাইবার ক্রাইম শাখায় অভিযোগ দায়ের হয়। তাঁর বিরুদ্ধে নির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে মামলা রুজু করা হয়েছে বলেই জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শ্যামল সামন্ত।

তবে এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বিষ্ণুপুরের সাংসদ বলেন, করোনা মোকাবিলায় নার্সদের অবস্থা তুলে ধরেছিলাম, মনে হয় সে কারনে এই ব্যবস্থা, আসলে বিরোধীদের মুখ বন্ধ করার চেষ্টা বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি আরও বলেন, এর আগেও আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করা হয়। এবারও হচ্ছে। কেন্দ্রের দেওয়া চাল লুটপাট করতে কোনও সমস্যা না হয় তার ব্যবস্থা করতে এই মামলা বলে জানান তিনি।

উল্লেখ্য, এর আগে বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা ফেসবুকে পুলিশ আক্রান্ত হওয়ার একটি ভিডিও পোস্ট করেন। ঘটনাটি খিদিরপুরের বলেই দাবি করেন বিজেপি নেতা। কিন্তু ভিডিওটির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। তদন্ত করে দেখা যায় ওই ভিডিওটি খিদিরপুরের নয়। আদতে সেটি মুম্বইয়ের ভিডিও। এরপরই সোশ্যাল মিডিয়ায় গুজব ছড়ানোর অভিযোগে অনুপম হাজরার বিরুদ্ধে গিরিশ পার্ক থানায় জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করা হয়। করোনা আতঙ্কে কাঁটা প্রায় প্রত্যেকে। তারপরেও কীভাবে একজন সাংসদ সোশ্যাল মিডিয়ায় কীভাবে গুজব রটাতে পারেন, তা নিয়েই উঠেছে সমালোচনার ঝড়।