Yogi Adityanath

টিডিএন বাংলা ডেস্ক: দেশে মারণ করোনার থাবায় মৃত্যু হয়েছে ৪ জনের। আক্রান্ত ২০০ ছুঁতে যাচ্ছে। থর থর করে কাঁপছে গোটা দেশ। এর মধ্যে শাহিনবাগ থেকে সিএএ বিরোধী অবস্থান বিক্ষোভ প্রত্যাহারের দাবি জানান বিজেপি নেতা শাহনওয়াজ হুসেন। মঙ্গলবার টুইটারে এক ভিডিও বার্তায় তিনি জানান, শাহিনবাগের মা ও বোনেদের কাছে আর্জি আপনাদের জীবন অনেক মূল্যবান। করেনাভাইরাস একটা বড় বিপদ। ফলে অবিলম্বে আপনাদের বিক্ষোভ প্রদর্শন বন্ধ করে দেওয়া উচিত। সুত্রের খবর, এরপরেই শাহিনবাগ থেকে অবস্থান বিক্ষোভ প্রত্যাহারের দাবিতে দেশের শীর্ষ আদালত সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করেন আশুতোষ দুবে নামে এক আইনজীবী।

কিন্তু একদিকে করোনার জেরে শাহিনবাগ তুলতে যখন সুপ্রিম কোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের করা হচ্চে তখন আবার অন্যদিকে যোগীরাজ্য উত্তরপ্রদেশে ১০ লাখ মানুষ নিয়ে রাম নবমীর আয়োজন হতে চলেছে। আর এই নিয়ে শুরু হয়েছে নয়া চাঞ্চল্য। দেশের এমন ভয়াবহ পরিস্থিতিতে যদি শাহিনবাগ তুলতে জনস্বার্থ মামলা তবে ১০ লাখ মানুষ নিয়ে কি করে রাম নবমীর আয়োজন হতে পারে? এমনটাই প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই। অনেকেই আবার বলছেন যে তবে কি করোনা নিয়েও বিজেপি সরকার রাজনীতি করতে চাইছে?

করোনার জেরে কার্যত রুদ্ধ গোটা দেশ। দেশের কোনও অংশে বন্ধ রয়েছে একের পর এক দুরপাল্লার ট্রেন চলাচল, কোথাও বন্ধ স্কুল, কলেজ, দফতর, রেস্তোরাঁ। সরকার থেকে বারবার জমায়েতের ওপর বিধি নিষেধ আরোপিত হচ্ছে বিভিন্ন রাজ্যে। যেখানে মানুষের সঙ্গে মানুষের যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করার কথা বলা হচ্ছে করোনা ছড়িয়ে পড়ার আতঙ্কে, সেখানে আগামী ২৫ মার্চ থেকে উত্তরপ্রদেশে আয়োজিত হতে চলেছে রাম নবমী মেলা। চলবে ২ এপ্রিল পর্যন্ত। আর সেই মেলায় ১০ লাখ মানুষের সমাগম হওয়ার কথা। এই মেলা আয়োজনে ছাড়পত্র দিয়েছে উত্তরপ্রদেশের বিজেপি শাসিত সরকার।

এদিকে, এমন পরিস্থিতিতে মেলা আয়োজন ঘিরে রীতিমতো উদ্বিগ্ন জেলা প্রশাসন। যদিও জেলা প্রশাসনের তরফে জানানো হয়েছে যে, আগন পূণ্যার্থীদের নিয়ে যথাযোগ্য নিরাপত্তা তাঁরা নিচ্ছেন। কিন্তু করোনা নিয়ে তাঁরা চিন্তিত। বিশেষজ্ঞরা বলছেন করোনা ভাইরাসের স্টেজ ২ ভারতে শুরু হয়ে গিয়েছে। আর ভারতে এই ভাইরাসের আক্রমণ সবচেয়ে বেশি দেখা দিতে পারে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে। এমন পরিস্থিতিতে যোগীরাজ্য উত্তরপ্রদেশে আগামী ২৫ মার্চ থেকে ২ এপ্রিল আয়োজিত হতে চলেছে বিশেষ ‘মেলা’।

মেলার আয়োজন ঘিরে চিকিৎসক মহলে উদ্বেগ শুরু। তাঁদের দাবি, ১০ লাখ পূণ্যার্থীর জন্য মাস্ক বা স্ক্রিনিং এর ব্যবস্থা তাঁদের কাছে নেই। নেই আগতদের টেস্ট করার মতো পরিকাঠামো। এমন অবস্থায় এই সমাগম নিয়ে চরম উদ্বেগে চিকিৎসক মহল। এদিকে, ৯ নভেম্বর অযোধ্যা মামলার ঐতিহাসিক রায়ের পর রাম মন্দির নির্মাণ নিয়ে এবারই বড় আকারে রাম নবমী পালিত হওয়ার কথা উত্তরপ্রদেশের অযোধ্যায়।