টিডিএন বাংলা ডেস্ক: বুধবার প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে লণ্ডভণ্ড হয়ে গিয়েছে কলকাতা। আমফানের তাণ্ডবলীলায় প্রাণ হারিয়েছেন বহু মানুষ। বছরের প্রথম সাইক্লোন আমফানের আমফানের তাণ্ডবে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের একাধিক জেলা কার্যত ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে। বঙ্গোপসাগর দিয়ে এই সুপার সাইক্নোন বয়ে যাওয়ার পরই আরও এক মহাপ্রলয় অপেক্ষা করছে। তার নাম নিসর্গ।

বঙ্গোপসাগরের তৈরি হওয়া ট্রপিক্যাল সাইক্লোনের সাধারণ এক চরিত্র থাকে। এই সাইক্লোন সাধারণ সক্রিয় থাকে ৯ থেকে ১০দিন। তিনটি ধাপে এই সাইক্লোন মহাপ্রলয়ের রূপ নেয়। ঠিক যেমন নিয়েছিল আমফান। সমুদ্রস্তরের একটা অংশে তাপের সঞ্চারের ফলে ইমম্যাচিওর্ড, ম্যাচিওর্ড, ডিকে- এই তিন ধাপে সাইক্নোন ভয়ঙ্কর রূপ নেয়।

কিন্তু আম্ফান যে শক্তি নিয়ে এসেছে বঙ্গের উপকূলে তা সুপার সাইক্লোনে পর্যবসিত হয়েছে। ২০০৪ থেকে ২০২০ পর্যন্ত আটটি দেশ আটটি করে নাম দিয়ে ঝড়ের তালিকা তৈরি করেছিল। সেই নামকরণের তালিকার শেষতম ঝড় এই আমফান। সেই ঝড়ই বাংলার বুকে তাণ্ডব চালিয়ে গিয়েছে।

এবার নতুন তালিকা প্রস্তুত করেছে ১৩টি দেশ। ১৩টি করে নাম দিয়ে তারা ১৬৯টি ঝঢ়ের তালিকা প্রস্তুত করেছে। সেই হিসেবেই পর্যায়ক্রমে নাম পাবে পরবর্তী ঘূর্ণিঝড়গুলি। সেই ক্রমানুসারে সুপার সাইক্লোন আমফানের পরে যে সাইক্নোন ধেয়ে আসতে চলেছে, তার নাম নিসর্গ। ক্রান্তীয় ঘূর্ণিঝড়গুলি এবার থেকে ২০২০ সালে প্রকাশিত ১৩ সারি তালিকার নাম ব্যবহার করবে।