টিডিএন বাংলা ডেস্ক : আইনের কাছে সবাই সমান। সে বিরাট কোহলি হোক বা সাধারণ কেউ। আইন যে সবাইকে সমান অধিকার দেয় তা আরও একবার প্রমাণিত হল। নিয়ম ভাঙার অভিযোগ উঠলো বিরাট কোহলির বিরুদ্ধে। পানীয় জল অপচয় করার কারণে ৫০০ টাকা জরিমানা দিতে হল ভারতীয় অধিনায়ককে।

প্রসঙ্গ, ৬-৭চি দামি গাড়ি রয়েছে কোহলির। তাঁর গাড়ির দেখভাল করেন দীপক নামের একজন। সেই তিনিই পানীয় জল নষ্ট করে গাড়ি সাফ করছিলেন। বেশ কয়েকদিন ধরে তাঁর বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ উঠছিল।

গুরুগ্রামে কোহলির বাড়িতে পানীয় জল দিয়ে গাড়ি পরিষ্কার করছিলেন দীপক। তখনই পরিবহণ দফতরের কয়েকজন দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মী দীপককে হাতেনাতে ধরে ফেলেন। তার পরই পাঁচশো টাকা জরিমানা ধার্য করেন তাঁরা।

গুরুগ্রামের ডিএলএফ ফেজ-১ এ কোহলির বাড়ি। সাইবার সিটি-এর ফেজ-১, ২ ৩ এলাকায় গরমকালে তীব্র জলসঙ্কট দেখা দেয়। সেখানে ৬-৭টি গাড়ি ধোয়ার জন্য পানীয় জল ব্যবহার করতেন দীপক। তা নিয়ে প্রতিবেশীরা অনেকদিন ধরেই অভিযোগ করতেন।

পরিবহণ দফতরের তরফে জানানো হয়েছে, কোহলির ৬-৭টি গাড়ি ধোয়ার জন্য প্রায় এক হাজার লিটার পানীয় জল অপচয় হত। তবে ওই এলাকায় আরও বেশি কিছু গাড়ির মালিকের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ ছিল। তাঁদের প্রত্যেককেই জরিমানা দিতে হয়েছে।