টিডিএন বাংলা ডেস্ক : ফের সরিয়ে দেওয়া হয়েছে তাঁকে। অভিযোগ, মিথ্যা,গুরুত্বহীন এবং প্রমাণ নেই এমন অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। সিবিআই আধিকর্তার পদ থেকে সরিয়ে দেওয়ার পর জানালেন অলোক বার্মা। তিনি মত প্রকাশ করে বলেন, বাইরের প্রভাবমু্ক্ত হয়ে কাজ করা উচিত সিবিআই-এর মতো প্রতিষ্ঠানকে, কিন্তু সেটা ধ্বংস করার চেষ্টা হয়েছে। সিবিআই ডিরেক্টরের পদ থেকে আমাকে সরিয়ে দিয়েছে। কিন্তু আমি সিবিআই-এর স্বতন্ত্রতা এবং অখণ্ডতা বজায় রাখার চেষ্টা করেছিলাম। ফের দায়িত্ব নিতে বললে, আমি সেই চেষ্টাই করব। সুপ্রিম কোর্টের রায়ে পদে ফিরে আসার ৪৮ঘণ্টা পরেই ফের অপসারিত হন সিবি‌আই অধিকর্তা অলোক বার্মা। বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী, বিরোধী দলনেতা ও সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতিকে নিয়ে গঠিত তিন সদস্যের কমিটির দীর্ঘ বৈঠক থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সিদ্ধান্ত সংখ্যাগরিষ্ঠের মতামতে। আপত্তি জানিয়েছেন বিরোধী দলনেতা কংগ্রেসের মল্লিকার্জুন খারগে। কেন্দ্রীয় ভিজিল্যান্স কমিশন বার্মার বিরুদ্ধে অভিযোগ এনেছে বলে জানানো হলেও বৈঠকে সেই অভিযোগের বিশদ পেশ করা হয়নি বলেই খবর। তার বদলে একটি সংক্ষিপ্ত রিপোর্টে  কয়েকটি অভিযোগের সত্যতা মিলেছে বলে মন্তব্য করা হয়েছে। বার্মাকে এদিনই দমকল, সিভিল ডিফেন্স, হোমগার্ডের ডিরেক্টর জেনারেল পদে নিয়োগ করা হয়েছে। অতিরিক্ত অধিকর্তা এম নাগেশ্বর রাওকেই সিবিআই প্রধান করা হয়েছে। অক্টোবরে মধ্যরাতের রদবদলে তাঁকেই এই পদে অস্থায়ীভাবে বসানো হয়েছিল। অলোক বার্মার মেয়াদ ছিল ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত।