টিডিএন বাংলা ডেস্ক: গত বছর আগস্ট মাসে জম্মু–কাশ্মীর থেকে ৩৭০ ধারা তুলে দেয় কেন্দ্রের বিজেপি সরকার। এরপর থেকেই অশান্ত হয়ে রয়েছে উপত্যকা। ৩৭০ ধারা বিলোপের পরেই উপত্যকার সমস্ত প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে গৃহবন্দি করে মোদি সরকার। এমনকি জম্মু–কাশ্মীরের একাধিক নেতাকে আটক করা হয়েছে। এবার দীর্ঘ সাত মাস পর গৃহবন্দি থেকে মুক্তি পেলেন উপত্যকার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুখ আবদুল্লা। শুক্রবার একটি নির্দেশিকা প্রকাশ করে এমনটাই জানাল জম্মু–কাশ্মীরের স্বরাষ্ট্র দপ্তর। পাশাপাশি গৃহবন্দি করা হয়েছিল প্রাক্তন আরও দুই মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লা এবং মেহবুবা মুফতিকে।

প্রথম থেকেই কেন্দ্রীয় সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়ে আসছিল বিরোধীরা। তার পরেও ছাড়া হয়নি ফারুখকে। বরং ডিসেম্বরে তাঁর বন্দিদশার মেয়াদ আরও তিন মাস বাড়ানো হয়। অবিলম্বে ফারুখ আবদুল্লার মুক্তি চেয়ে সম্প্রতি ৮টি বিরোধী দল কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন জানিয়েছিল। সেই সঙ্গে ফারুখ আবদুল্লার ছেলে ওমর আবদুল্লা এবং উপত্যকার আর এক প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতির মুক্তির দাবিও জানিয়েছিলেন তাঁরা। তার পরই এ দিন জম্মু–কাশ্মীর প্রশাসনের তরফে ৮৩ বছরের ফারুখকে মুক্তি দেওয়ার কথা জানানো হল। তবে ওমর এবং মেহবুবাকে নিয়ে এখনও কোনও সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়নি।

উল্লেখ্য, তিন বার জম্মু–কাশ্মীরের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন ফারুখ আবদুল্লা। ন্যাশনাল কনফারেন্স থেকে পাঁচবার সাংসদও হয়েছেন। এই মুহূর্তে লোকসভার সদস্য তিনি। গত ৫ আগস্ট জম্মু–কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বিলোপের পর তাঁকে বন্দি করা হয়। ওই মাসেরই ১৭ তারিখে ফারুখ আবদুল্লার উপর জন নিরাপত্তা আইন প্রয়োগ করে কেন্দ্রীয় সরকার। এই আইনে বিনা বিচারে দু’বছর পর্যন্ত কাউকে আটকে রাখা যায়।