টিডিএন বাংলা ডেস্ক : সাংসদে এমন একটি বিল পেশ হতে যাচ্ছে, যে বিল পাশ হয়ে গেলে ভোটার রা ‘রাইট টু রিকল’ অর্থাৎ তাদের দ্বারা নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিকে তারা ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিতে পারবে। লোকসভার বিজেপি সাংসদ বরুন গান্ধীর পক্ষ থেকে পেশ করা একটি বিল নিয়ে আলোচনা করা হবে। ওই বিলে  প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে যে, কোন এলাকার ৭৫ শতাংশ ভোটার যদি দাবী করে যে তাদের সাংসদ বা বিধায়ক কাজ করেনা তাহলে তার পদ বাতিল করা হবে। নির্বাচনের দু’ বছর পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া যাবে । উক্ত বিল সম্পর্কে বরুণ গান্ধী বলেন, “জনগণ নিজের প্রতিনিধি বাছাইয়ের ক্ষেত্রে যেমন ক্ষমতা রাখে, সেরকমই নির্বাচিত করা অকর্মণ্য প্রার্থীদের ক্ষমতা কেড়ে নেওয়ারও ক্ষমতাও তাদের দেওয়া উচিত।”
বিশ্বের বেশ কিছু দেশে এই পদ্ধতি চলছে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। বরুন গান্ধী জন প্রতিনিধিত্ব আইন ১৯৫১ সংশোধন করে জন প্রতিনিধিত্ব অধিনিয়ম ২০১৬ র প্রস্তাব দেন। এই প্রক্রিয়া ভোটদাতার সাক্ষর সংগ্রহের মাধ্যমে করা হবে। যদি মোট ভোটদাতার ৭৫ শতাংশ জনগণ বিপক্ষে ভোট দেয় তাহলে ওই এলাকার সাংসদ বা বিধায়কদের পদ খারিজ করা হবে।
বরুন গান্ধীর প্রস্তাবিত এই ব্যাক্তিগত মেম্বার বিলে বলা হয়েছে, নির্বাচন কমিশন সাক্ষরের সত্যতা যাচাই করবে এবং তারপর সাংসদ বা বিধায়কের এলাকায় ১০ জায়গায় পুনঃনির্বাচন করাতে পারবে।