টিডিএন বাংলা ডেস্ক: নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে এবার সরকারকে সরাসরি চ্যালেঞ্জ ছুড়ল অসম জাতীয়তাবাদী যুব ছাত্র পরিষদ। রবিবার গোরেশ্বর কলেজে বাকসা জেলা কমিটির প্রতিনিধি সভা ও অধিবেশনে অংশ নিয়ে এই মন্তব্য করেন জাতীয়তাবাদী যুব ছাত্র পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক পলাশ সাংমাই।

তিনি বলেন, ‘সদ্য অনুষ্ঠিত লোকসভা নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে রাজ্যের বিজেপি সরকার যদি মনে করেছে যে এটা নাগরিকত্বের বিলের প্রতি অসম বাসীর স্বতঃস্ফূর্ত সমর্থন, তবে বিরাট ভুল করছে তারা। সরকারের সাহস থাকলে নাগরিকত্ব বিল নিয়ে সরকার গণভোটের ব্যবস্থা করুক। গণভোটে অসমবাসী বিলের পক্ষ্যে রায় দিলে আমরাও তা মেনে নেবে’।

সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপচারিতায় পলাশ সাংমাই আরও বলেন, লোকসভা ভোটে বিপুল জয় নিয়ে ভুল ধারণা রয়েছে সরকারের। এই জয় নাগরিকত্ব বিলের প্রতি রাজ্যবাসীর সমর্থন নয়। তবে এই বিল নিয়ে সরকার জোর-জবরদস্তি করতে চাইলে রাজ্যের জাতীয় সংগঠনগুলি ভয়ংকর আন্দোলন কর্মসূচি গ্রহণ করবে।

রবিবার সকাল ন’টায় পতাকা উত্তোলন করে প্রতিনিধি সভার উদ্বোধন করেন বাকসা জেলা যুব ছাত্র পরিষদের আহ্বায়ক ওয়াহেদ রহমান। শহীদ তর্পণ করেন বাকসা জেলা কমিটির আহ্বায়ক মদন কুমার, ধ্রুবজ্যোতি বায়ন ও নয়নজ্যোতি কলিতা। দুপুর একটায় কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক চন্দন কলিতর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয় প্রতিনিধি সভা। এতে নির্দিষ্ট বক্তা হিসেবে ভাষণ দেন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক পলাশ সাংমাই।

সভায় পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির বেশ কয়েকজন পদাধিকারী উপস্থিত ছিলেন। এতে সর্বসম্মতিক্রমে বাকসা জেলা কমিটির সভাপতি হন ওয়াহেদ রহমান, উপ-সভাপতি হরমোহন বরুয়া, মন্টু পাটোয়ারী ও দিলীপ দাস, সাধারণ সম্পাদক হন ধ্রুবজ্যোতি বায়ন, সহকারী যুগ্ম-সচিব হিসেবে চন্দন দাস ও হিরেন রাজবংশীকে বেছে নেওয়া হয়। সন্ধ্যায় প্রদীদ প্রজ্জ্বলনের মাধ্যমে শেষ হয় অনুষ্ঠান। যুগশঙ্খ