টিডিএন বাংলা ডেস্ক: দেশের বিভিন্ন জায়গায় একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা ঘটেই চলেছে। সম্প্রতি হায়দ্রাবাদে ধর্ষণের ঘটনায় উত্তাল হয়েছিল দেশ। অভিযুক্তদের বিচারের আওতায় আনার আগেই গুলি করে মারে হায়দ্রাবাদ পুলিশ। ২০১৮ সালে দেশে প্রতিদিন গড়ে ধর্ষণ ৯১, খুন ৮০ ও ২৮৯টি করে অপহরণের ঘটনা ঘটেছে, এবার এমনটাই চাঞ্চল্যকর রিপোর্ট পেশ করল ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরো।

২০১৮য় সারাদেশে ৫০,৭৪,৬৩৪টি ধর্তব্যযোগ্য অপরাধ সংগঠিত হয়েছে, যা কিনা ২০১৭-র থেকে উল্লেখযোগ্যভাবে বেশি। খুন বা অপহরণের ঘটনাও আগের বছরের থেকে বেড়েছে ২০১৮য়। তথ্য বলছে, ব্যক্তিগত আক্রোশ, বিবাদের জেরেই বেশির ভাগ খুনের ঘটনা ঘটেছে। ২০১৮য় দেশে মোট ধর্ষণের ঘটনা নথিভুক্ত হয়েছিল ৩৩ হাজারের কিছু বেশি। ২০১৭য় সংখ্যাটা ছিল কিছুটা কম। তবে ২০১৬য় এ-দেশে নথিভুক্ত হওয়া ধর্ষণের ঘটনাই ছিল ৩৯ হাজারের কাছাকাছি।

দিন যত গড়াচ্ছে, যুগ তত উন্নত হচ্ছে, ডিজিটাল হচ্ছে। কিন্তু তার সঙ্গে সমান তালে পাল্লা দিয়ে বেড়েও চলেছে অপরাধের ঘটনা। দিন দিন ধর্ষণ আর খুনের ঘটনা যে হারে বাড়ছে তা কতকগুলি প্রশ্ন তুলে দিচ্ছে। দেশ কোথায় কোথায় অপরাধ মুক্ত? নারীরা কবে দেশের বুকে ধর্ষকদের হাত থেকে পুরোপুরি মুক্তি পাবে? মোদী সরকারের আমলে যেভাবে ধর্ষণ, খুন আর নারী ঘটিত অপরাধ বেড়ে চলেছে, তাতে আরও একবার প্রশ্নের মুখে দাঁড়িয়ে গেল বিজেপি সরকারের “বেটি বাচাও, বেটি পড়াও” স্লোগান।