টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ২০১৯ লোকসভা ভোটের আগে যুব তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি ও ডায়মন্ড হারবারের সাংসদ অভিষেক বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের বিরুদ্ধে ভুয়ো ডিগ্ৰির অভিযোগ এনেছিল সিপিএম। সেই মামলায় এবার দিল্লির এক বিশেষ আদাতল তলব করল অভিষেক বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়কে। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সার্থক চতুর্বেদীর করা মামলার ভিত্তিতে ২৫ জুলাইয়ের মধ্যে অভিষেককে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে দিল্লির আদালত।

প্রসঙ্গত, শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে ভুল হলফনামা জমা দেওয়ার অভিযোগ রয়েছে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। গত লোকসভা নির্বাচনের আগেই ডায়মন্ডহারবারের সাংসদের বিরুদ্ধে এমনই চাঞ্চল্যকর অভিযোগ এনেছিল সিপিএম। বিধানসভায় দলের পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তীর অভিযোগ ছিল, ‘নির্বাচন কমিশনকে দেওয়া হলফনামায় নিজেকে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ২০০৮-০৯ সালে পাশ এমবিএ ডিগ্রি নিয়ে পাশের দাবি করেছেন অভিষেক। তবে ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই ২০১৪ সালে দিল্লি হাইকোর্টে জমা দেওয়া হলফনামায় জানিয়েছিল, তারা কোনও ডিগ্রি দেয় না।’

যদিও সাংসদের ঘনিষ্ঠমহল সূত্রে এর আগে সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত, ওই বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সংক্রান্ত দিল্লি আদালতের রায় বেরিয়েছিল ২০১৪ সালে। আর অভিষেক ডিগ্রি পেয়েছিলেন ২০০৯ সালে। সুতরাং এই ক্ষেত্রে আদালতের রায় প্রযোজ্য নয়।

প্রসঙ্গত, তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি অভিষেকের ডিগ্রি নিয়ে এর আগে একই অভিযোগ তুলেছিল বিজেপি।