টিডিএন বাংলা ডেস্কঃ ভারতীয় জনপ্রিয় ইসলামিক বক্তা ড. জাকির নায়েককে নিজের দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কখনোই আমার কাছে আবেদন করেননি, এমনটাই জানালেন মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমের প্রকাশিত, মঙ্গলবার সকালে কুয়ালালামপুর ভিত্তিক বিএফএম মালয়েশিয়া রেডিও স্টেশনকে একথা বলেন মাহাথির। তিনি বলেন, অনেক দেশই জাকির নায়েককে চায় না। তবে চলতি মাসের প্রথম দিকে রাশিয়ায় মোদির সাথে আমার দেখা হয়েছিল। তিনি সেখানেও জাকির নায়েকের ব্যাপারে আমাকে কিছু জিজ্ঞাসা করেননি। এমনকি নায়েককে ফেরত নেওয়ার জন্য নয়াদিল্লি আমাকে কোনও মেল বা নোটিশ পর্যন্ত পাঠায়নি।

তিনি আরও বলেন, 53 বছর বয়সী নায়েককে পুত্রজায়া শহর এখনও অন্য জায়গায় পাঠাতে রাজি। তিনি বলেন, নায়েকের বিরুদ্ধে জাতিগতভাবে বিভেদমূলক মন্তব্যের অভিযোগ উঠার পরে তাকে মালয়েশিয়ায় প্রকাশ্যে কথা বলতে যেন না দেওয়া হয় বলে কেউ কেউ দাবি জানিয়েছে, সেই দাবির বিরোধিতা করে অনেকে আবার বলেছেন যে তবে দেশে বসবাসকারী চীনাদেরও চীনে পাঠানো হোক।

‘পিস টিভি’র প্রতিষ্ঠাতা জাকির নায়েক ২১০৩ সালে ভারত থেকে এসে মালয়েশিয়ায় বসবাস করছেন। তিনি এই দেশের নাগরিক নন ঠিকই কিন্তু দেশের সরকার তাকে এখানে স্থায়ী ভাবে বসবাস করার অনুমতি দিয়েছে। অন্য দেশ থেকে আসা স্থায়ী বাসিন্দাদের জন্য এই দেশের সিস্টেম যে, দেশের রাজনীতি সম্পর্কে তারা কোনও মন্তব্য করতে পারবেনা। কিন্তু নায়েক তা ভঙ্গ করেছেন। সেকারণেই তাকে এখন কথা বলতে দেওয়া হচ্ছে না। নায়েককে আমরা অন্য কোথাও পাঠানোর জন্য চেষ্টা করছি তবে এই মুহুর্তে কেউ তাকে গ্রহণ করতে চায় না।

উল্লেখ্য, গত মাসে থেকে জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশের পক্ষ থেকে নায়েককে মালয়েশিয়ার রাজ্যেগুলিতে জনসভায় বক্তব্য রাখতে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। ৩ আগস্ট নায়েক বলেছিলেন যে মালয়েশিয়ার হিন্দুরা এদেশে ভারতের মুসলমান সংখ্যালঘুদের চেয়ে “১০০ গুণ বেশি অধিকার পেয়েছে তবুও তারা মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নয়, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে সমর্থন করে।

সুত্র- সিয়াসাত