টিডিএন বাংলা ডেস্ক : কেরলের পদুচেরি শহরের রাস্তায় নারীরা রাতের বেলায় কতটুকু নিরাপদ, জানতে মাঠে নেমেছেন রাজ্যপাল কিরণ বেদি। আরেক নারীকে সঙ্গে নিয়ে স্কুটি হাঁকিয়ে রাতের শহরের রাস্তায় রাস্তায় ঘুরেছেন তিনি।


গত শুক্রবার রাতে কিরণ বেদি রাজপথে নামেন। টহল শেষে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম টুইটারে কিরণ বেদি জানান, পদুচেরির রাস্তা রাতে মোটামুটি নিরাপদই থাকে। শহরটি আরো নিরাপদ করা হবে। তবে কী কারণে হঠাৎ রাজ্যপালের মাথায় এই খেয়াল চেপে বসল, সে বিষয়ে কিছুই জানাননি তিনি।


সেদিন রাতে রাস্তায় বেদির সঙ্গে শুধু একজন নারীই ছিলেন না, বরং তাঁদের পিছু পিছু একটি মোটরসাইকেলে করে টহল দিয়েছেন আরো দুই ব্যক্তি। তাঁরাই রাজ্যপালের রাতের শহর ভ্রমণের বিভিন্ন মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দি করেন।


সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে কিরণ বেদির এ পদক্ষেপের প্রশংসা করেছেন অনেকেই। তবে ভুল খুঁজতে ছাড়েননি ‘নিন্দুকেরা’। তাঁদের মতে, রাতে হেলমেট ছাড়াই স্কুটি চালান দুজন, যা একেবারেই আইনের লঙ্ঘন।
এর জবাব দিয়েছেন কিরণ বেদিও। ইচ্ছা করেই এমনটি করেছেন বলে জানান তিনি। রাতে দুজন নারী স্কুটিতে ঘুরছে, এটাই বোঝাতে চেয়েছিলেন তাঁরা।
সরকারি তথ্য অনুযায়ী, পদুচেরিতে ২০১৬ সালে ১৮টি নারী হয়রানির ও দুটি যৌন হেনস্তার ঘটনা ঘটেছে।