টিডিএন বাংলা ডেস্ক : কেরলের উত্তর থেকে দক্ষিণ প্রান্ত পর্যন্ত  লিঙ্গ বৈষম্য ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে বিপুল সংখ্যক  নারী মানব বন্ধনে(‘নারীর দেওয়াল’) সামিল হল।
মঙ্গলবার উত্তর কেরালার কাসারগোদ থেকে দক্ষিণে তিরুবনন্তপুরম পর্যন্ত ৬২০কিমি দীর্ঘ  মানব বন্ধন হয়। অংশগ্রহণকারীরা প্রাথমিকভাবে বিকেল ৩ টার দিকে একটি রিহার্সালের জন্য মনোনীত কেন্দ্রে জড়ো হয়েছিল এবং এক ঘন্টা পরে মানব বন্ধন শুরু হয়েছিল।

উদ্বোধনী ভাষণে কমিউনিস্ট পার্টি অব ইন্ডিয়া (মার্কসবাদী) নেত্রী বিন্দ্রা কারাত ‘মানব দেওয়াল’কে জীবনের প্রতিটি স্তরে নারীর সমানতার অভিব্যক্তি বলে অভিহিত করেন।
সুপ্রিমকোর্টের বিরুদ্ধে ডানপন্থী দলগুলোর সাম্প্রতিক বিক্ষোভের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন- “কিছু নারী বিশেষভাবে লর্ড আইয়াপ্পাকে উপাসনা করতে বিশ্বাস করেন এবং আমরা তার প্রতি শ্রদ্ধা করি। যাইহোক, নারীদের যারা সরাসরি তার আশীর্বাদ চাইতে চায় তাদেরকে থামানো অসাংবিধানিক।”

কেরালার মুখ্যমন্ত্রী পি.বিজয়ন বলেন, শবরীমালায় নারীর প্রবেশ নিয়ে সাম্প্রদায়িক শক্তির বিরুদ্ধে সরকার ও অন্যান্য প্রগতিশীল সংস্থাগুলিকে ‘নারীর দেওয়াল’ ধারণে অনুপ্রাণিত করেছিল।

লেখক, ক্রীড়াবিদ, অভিনেতা, রাজনীতিবিদ, প্রযুক্তিবিদ, সরকারি কর্মকর্তা সহ বিভিন্ন পেশার মহিলারা এই মানব বন্ধনে সামিল হন। এর সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে, হাজার হাজার পুরুষও একইভাবে দ্বিতীয় ‘মানব দেওয়াল’ গঠন করে।