টিডিএন বাংলা ডেস্ক : গড় জাতীয় উৎপাদন বৃদ্ধির শতকরা হার, অর্থনীতির পরিভাষায় যার পরিচিতি জিডিপি নামে, সেই উন্নয়নের সূচক নিয়ে শুরু হল রাজনৈতিক তরজা। বুধবারই পুরনো উন্নয়নের সমস্ত হিসেব নতুন করে প্রকাশ করে কেন্দ্রীয় পরিসংখ্যান দফতর। সেখানে তাৎপর্যপূর্ণভাবে কমিয়ে দেওয়া হয়েছে ইউপিএ জমানার সমস্ত উন্নয়নের সূচক।

নীতি আয়োগের এই অর্থনৈতিক রিপোর্ট সামনে আসার পরই পুরো বিষয়টিকে ‘বাজে রসিকতা’ বলে কটাক্ষ করে কংগ্রেস। আর এখন এই সংস্থাকে ‘অকর্মণ্য’ বলে নীতি আয়োগ তুলে দেওয়ার সময় এসেছে বলেছেন কংগ্রেস নেতা এবং প্রাক্তন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী পি চিদাম্বরম। একই সঙ্গে নীতি আয়োগের ভাইস চেয়ারম্যানকে সাংবাদিক বৈঠক না করে অর্থনীতির তর্কযুদ্ধে বসার চ্যালেঞ্জও দিয়েছেন তিনি।

বুধবারই প্রকাশিত হওয়া এই রিপোর্টে দেখানো হয়েছে, ইউপিএ জমানায় সর্বোচ্চ গড় জাতীয় উৎপাদন বৃদ্ধির হার ২০১০-১১ অর্থবর্ষে। কিন্তু আগে এই সংখ্যা ১০.৩ শতাংশ হলেও নতুন হিসেবে তা দাঁড়িয়েছে মাত্র ৮.৫ শতাংশ। শুধু ২০১০-১১ অর্থবর্ষই নয়, ২০০৫ সাল থেকে প্রতিটি অর্থবর্ষের হিসেবই বদলে দেওয়া হয়েছে। প্রতি ক্ষেত্রেই তাৎপর্যপূর্ণভাবে কমিয়ে দেওয়া হয়েছে জিডিপি সূচকের শতাংশের বৃদ্ধির হিসেব।