টিডিএন বাংলা ডেস্ক : বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তান থেকে ধর্মীয় নির্যাতনের শিকার হয় যেসব অ-মুসলিম লোক ভারতে আশ্রয় নিয়েছে তাদের সংস্থাপনের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের প্রস্তাবিত নাগরিকত্ব আইন (সংশোধনী) বিল কাজে লাগবে না।





দিল্লির প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে দেশের বিশিষ্ট বুদ্ধিজীবী- দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক ঈশাঙ্কুর শইকীয়া, পশ্চিমবঙ্গের হিন্দু সংহতির প্ৰতিষ্ঠাপক তপন ঘোষ, অন্ধপ্রদেশের লেখিকা রমা এবং চেন্নাইয়ের গবেষক সুরেন্দ্রনাথ চন্দ্রনাথ বলেন, এই বিল উদ্বাস্তুদের সমস্যার সমাধান করবে না। সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে বিলটি বাতিল করে নতুন বিল আনার দাবি জানান তারা।



নেতৃবৃন্দ বলেন, যে বিলটি সংসদের শীতকালীন অধিবেশনে কেন্দ্রীয় সরকার পেশ করতে চলেছে তাতে যেসব আপত্তিসমূহ রয়েছে তা বাতিল করে নতুন আইন প্রবর্তন করা দরকার। এদিন ৮ দফা ঘোষণাপত্র প্রকাশ করে তারা বলেন, ২০১৬ সালে নাগরিকত্ব আইন সংশোধনী বিল তৈরি করা হয়েছে এবং বর্তমানে বিলটি সংসদীয় যৌথ কমিটির বিচারাধীন। শীতকালীন অধিবেশনে বিলটি পেশ করা হবে। কেন্দ্রের বিজেপি সরকার প্রতিশ্রুতি মতো বিলটি এনেছে।




কিন্তু বিলটিতে সাংবিধানিক বৈধতাও যথেষ্ট সন্দেহজনক বলে তারা মনে করেন এক্ষেত্রে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের জনগণকে বিশ্বাসে এনে আপত্তি গুলি সরিয়ে হিন্দুদের স্বার্থ যাতে সুরক্ষিত হয় এই দাবি জানান তারা।