টিডিএন বাংলা ডেস্ক: ইমিনো ডেফিসিয়েন্সি ভাইরাস (এইচআইভি) বা একোয়ার্ড ইমিউন ডেফিসিয়েন্সি সিনড্রোমের(এইডস) সর্বাধিক প্রসারের ক্ষেত্রে দেশের প্রথম রাজ্যে পরিণত হয়েছে মিজোরাম। যা মিজোরাম প্রশাসনের কাছে নতুন উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেখানে প্রতিদিন গড়ে ৮-৯ জন এই রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন বলে জানা গিয়েছে। তালিকায় পরবর্তী স্থান গুলিতে রয়েছে যথাক্রমে মনিপুর(১.৪৪শতাংশ) ও নাগাল্যান্ড (১.১৫ শতাংশ)।

মিজোরাম স্টেট কন্ট্রোল সোসাইটির কার্য নির্বাহী অধিকর্তা ড. লালথালেংলিনীর জানান, এইচআইভি পজেটিভ কেসগুলি বিশ্লেষন করলে দেখা যাচ্ছে ২৫ থেকে ৩৪ বছর বয়সের যুবক যুবতীদের মধ্যে এই রোগ সংক্রমণের প্রবণতা সবথেকে বেশী। এই প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন ১৫ থেকে ২৪ বছর বয়সী তরুণ-তরুণীরাও বাদ যাচ্ছে না তালিকা থেকে। এই বয়সের গ্রুপের ক্ষেত্রে এইচআইভি/এইডসের বিস্তারের হার যথাক্রমে ৪২.৩৮ শতাংশ, ২৬.৪৬ শতাংশ এবং ২৩.০ শতাংশ। এর অন্যতম কারণ হিসেবে অসুরক্ষিত যৌন সংসর্গকেই দায়ী করছেন বিশেষজ্ঞ মহলের একাংশ। তবে ১ শতাংশের বেশি এই ভাইরাসের সংক্রমন হচ্ছে সমকামিতার কারণে। এছাড়াও সংক্রমিত সূঁচ ও ব্লেড ব্যবহারের কারণ তো আছেই। সেক্ষেত্রে প্রায় ২৮.১২ শতাংশ এইচআইভি ভাইরাসের সংক্রমন ঘটে বলে একটি বিশেষ রির্পোট মারফত জানা গেছে।

ইতিমধ্যে এইচআইভির এই অস্বাভাবিক বৃদ্ধি রুখতে রাজ্যব্যাপী সচেতনতা গড়ে তোলার ডাক দিয়েছেন মিজোরামের মুখ্যমন্ত্রী জোরামথাঙ্গা। ১১ই অক্টোবর আইজলে এইডস বিষয়ে একটি সংবেদনশীল প্রচার অভিযানও করা হয়।