টিডিএন বাংলা ডেস্ক: দেশজুড়ে সিএএ, এনআরসি ও এনপিআর-এর বিরুদ্ধে আন্দোলন চলছে। এই আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছে সংখ্যালঘু মুসলিম নারীরা। এরই মধ্যে এবার কর্ণাটকের মাইসুরুর মেয়র হলেন প্রথম কোনও মুসলিম মহিলা। বিজেপি প্রার্থী গীতা যোগানন্দকে হারিয়ে মেয়রের পদে বসলেন তাসনিম। জনতা দল (সেকুলার) প্রার্থী তাসনিমের এই জয় অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে অনেকে মনে করছেন।

পরিচ্ছনতার শহর মাইসুরুর ২২ তম মেয়র হয়ে তাসনিম জানান, এই জয় পেয়ে অত্যন্ত খুশি। শহরের পরিচ্ছনতা ধরে রাখাই হবে তাঁর প্রথম লক্ষ্য। শহরের মানুষের বিভিন্ন সমস্যার দ্রুত সমাধানে তিনি সচেষ্ট হবেন বলে জানিয়েছেন। মহীশূরের ২৬ নম্বর ওয়ার্ডের প্রতিনিধি তাসনিম। তবে কোনও মুসলিমকে পুরনির্বাচনে লড়ার সুযোগ এই প্রথম নয় জেডিএস-এর। এর আগে ১৯৯৬ সালে প্রথম মুসলিম মেয়র হন আরিফ হুসেন। এরপর ২০০৮ সালে আয়ুব খানও জেডিএস-এর হয়ে মেয়র নির্বাচিত হন। তবে, এই কোনও প্রথম মুসলিম মহিলা মাইসুরুর প্রথম নাগরিক হলেন। আর এই জয়ে খুশি ধর্মনিরপেক্ষ মানুষ। কেননা, বিজেপি যখন সিএএ, এনপিআর ও এনআরসি নিয়ে প্রচার চালাচ্ছে আর নেতাদের মন্তব্যে মানুষ আতঙ্কিত হচ্ছে তখন একজন সংখ্যালঘু মুসলিম নারীর জয় বেশ গুরুত্বপূর্ণ।